শিরোনামঃ

দিনাজপুর খানসামায় আমের মুকুলের সমারোহ,বাম্পার ফলন-দেশবাংলা খবর২৪

দিনাজপুর খানসামায় আমের মুকুলের সমারোহ,বাম্পার ফলন-দেশবাংলা খবর২৪ 




রেজওয়ান আলী দিনাজপুর জেলা প্রতিনিধি-দিনাজপুর খানসামায় আমের মুকুলের সমারোহ,বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা। জানা যায়,ফাল্গুনের ছোঁয়ায় ফাগুন সেজেছে, পলাশ শিমুলের বনে লেগেছে আগুন রঙা ফুলের মেলা। শীতের জড়তা কাটিয়ে কোকিলের সেই সুমধুর কুহুতানে মাতাল করতে কয়েকদিনফিরে এসেছে ঋতুরাজ বসন্ত আভার চিত্র। 

মাঘের শীত শেষে বাড়তে শুরু করেছে উষ্ণতা। তাপমাত্রার সঙ্গে দিনাজপুরের খানসামা উপজেলায় আমের গাছে গাছে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মুকুলের সমারোহ। থোকা থোকা মুকুলের ভারে ঝুলে পড়েছে আম গাছের ডালপালা। এবছর বড় ধরনের কোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগ না হলে আর আবহাওয়া অনুকুলে থাকলে আমের বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা রয়েছে বলে মনে করছে কৃষি বিভাগ। মুকুলের সমারোহ দেখে আম চাষীদের মনে-প্রাণে আনন্দ বইছে। অনেকেই বাসার ও বাগানের আমের মুকুল পরিচর্যায় ব্যস্ত সময় পার করছেন। উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, গত কয়েক বছরের তুলনায় আম বাগান বৃদ্ধি পেয়ে বর্তমানে প্রায় ১০০হেক্টর জমিতে আম চাষ হয় এবং বসত-বাড়িতে প্রায় ১০ হেক্টর জমিতে আমের চাষ হয়েছে বলে জানা যায়। উক্ত স্হানে সরেজমিনে দেখা যায়,পাকেরহাট, পাঁচপীর ও মাদারপীর গ্রামের আম গাছে প্রচুর মুকুলের সমারোহ এবং কোথাও কোথাও আম বাগানে সাথী ফসল চাষ করা হচ্ছে। এতে কৃষকরা ভালোই লাভবান হচ্ছে এবং আম চাষে উৎসাহ বৃদ্ধি পাচ্ছে। পাকেরহাট গ্রামের আম চাষী মমিনুল ইসলাম বলেন,এবছর আম গাছ মুকুলে ছেয়ে গেছে। আবহাওয়া ভালো থাকলে বিগত সময়ের চেয়ে এবছর ফলন ভালো হবে মর্মে সকলের মন্তব্য। উক্ত

বিষয়ে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ বাসুদেব রায় জানান,আবহাওয়া অনুকুলে থাকায় আম গাছে ব্যাপক মুকুলের সমারোহ আর গাছে মুকুল এসেছে কিন্তু ফুল ফোটে নাই,মটর দানার মত ও মার্বেল আকার এই তিন অবস্থায় অনুমোদিত একটি ছত্রাকনাশক ও একটি কীটনাশক স্প্রে করতে পারলে আমের আরোও ভালো ফলন পাওয়া যাবে বলে মতামত প্রকাশ করেন।

No comments

-->