নতুন প্রকাশিতঃ

চিতলমারীতে ভিক্ষা করে চলছে ৪ জনের সংসার, নেই বাসস্থান

চিতলমারীতে ভিক্ষা করে চলছে ৪ জনের সংসার, নেই বাসস্থান 

মোঃ মিরাজুল শেখ, স্টাফ রিপোর্টার:

বাগেরহাট  চিতলমারী উপজেলার ১নং বড়বাড়িয়া  ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ড দলুয়াগুনি  গ্রামের বাসিন্দা মরহুম উকিল উদ্দিন মোল্লার স্ত্রী মছিরোন বেগম (৬৫) ও  তার দুই মেয়ে এবং দুই নাতীকে নিয়ে খুবই  কষ্টের সাথে জীবন যাপন করতেছেন৷

নেই একটা ঘর,এই শীতে নেই শীতের পোশাক,নেই লেপ বা কম্বল,নেই আয় করা মানুষ,যেদিকে তাকাই শুধু নেই আর নেই?নিজে শারীরিক অসুস্থ।তবু মানুষের দ্বারে দ্বারে ঘুরে ভিক্ষা করে চলছে তাদের ৪ জনের জীবন৷ মছিরোন বেগম বয়সের ভারে ঠিক মতো হাটতে  পারে না, শরীর তার মধ্যে অসুস্থ৷    তিনি অসুস্থ তবু কিছু করার নেই পেট যে কিছু মানে না৷অসুস্থ শরীর নিয়ে সারাদিন মানুষের দ্বারে দ্বারে ঘুরে যা পান তাই দিয়ে সংসার  চালাতে হয় ৷তাই নিরুপায় হয়ে করেনভিক্ষা৷

তিনি বলেন, আমি অনেক বার চেয়ারম্যান এর কাছে গেছি একটা ঘরের জন্য চেয়ারম্যান বিভিন্ন কথা বলে আমাকে শুধু শান্তনা দিয়ে রাখেন অনেক মানুষ দেখি চাল, ডাল, কম্বল পায় আমাকে দেয়না   । এবং মেম্বারের কাছে ও অনেক বার গেছি তার  কাছে গেলে বলে তোমারে কত দেবো আরও অনেক লোকজন আছে শুধু এ কথা বলে তাড়িয়ে দেয়। 

তিনি বলেন, আমি তিন হাজার টাকা দিতে পারি না এই জন্য   চাল পাওয়ার  কার্ড পাইনা। আমি চুরি করতে পারবো না তাই ভিক্ষা করে খাই৷স্থানীয়দের কাছে তার বিষয়ে জানতে চাইলে তারা বলে, বিশেষ করে তার একখানা ঘর নেই বৃষ্টি পরলে বাহিরে পড়ার আগে বিতরে পড়ে তাদের কষ্ট আরও বেড়ে যায়৷তারা বলেন অসহায় পরিবারটি একটা ঘর পেলে কষ্টটা কিছুটা হলেও কমবে।

No comments

-->