শিরোনামঃ

বিনম্র শ্রদ্ধা ও মর্যাদায় দিনাজপুরে মহান একুশে ফেব্রুয়ারী ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত

বিনম্র শ্রদ্ধা ও মর্যাদায় দিনাজপুরে মহান একুশে ফেব্রুয়ারী ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত






রেজওয়ান আলী দিনাজপুর জেলা প্রতিনিধি-


দিনাজপুরবাসী শহীদদের স্মরনে জেলায় বিনম্র শ্রদ্ধা ও ভালবাসায় মহান একুশে ফেব্রুয়ারী ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস-২০২১ পালিত হয়েছে।শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধার নিদর্শনস্বরূপ ফুলে ফুলে ছেয়ে গেছে দিনাজপুর গোর-এশহীদ বড় ময়দানে অবস্থিত শহীদ কেন্দ্রীয় মিনারসহ জেলার প্রতিটি শহীদ মিনার। 

আলোচনা সভা,সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান,ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প ও বিভিন্ন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে মহান ভাষা দিবস পালন করেছে জেলার বসবাসকারী জনসাধারণ। ২১শে(ফেব্রুয়ারী) রবিবার দিবসের প্রথম প্রহরে রাত ১২টা ১ মিনিটে পুষ্প অর্পণের মাধ্যমে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের হুইপ ও দিনাজপুর সদর আসনের সংসদ সদস্য ইকবালুর রহিম।

এ সময় জেলা প্রশাসক মো.মাহমুদুল আলম,পুলিশ মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন বিপিএম,পিপিএম (বার) ও প্রশাসনের অন্যান্য কর্মকর্তা প্রমূখ গণ উপস্থিত ছিলেন। রাতে দিনাজপুর মুক্তিযোদ্ধা সংসদ’র নেতৃবৃন্দ,দিনাজপুর পৌরসভার মেয়র সৈয়দ জাহাঙ্গীল আলম ও প্যানেল মেয়র মো.আবু তৈয়ব আলী দুলাল’র নেতৃত্বে পৌসভার কাউন্সিলরবৃন্দ শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়ে থাকে।

সকালে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি মিজানুর রহমান লুলু ও সহসভাপতি নুরুল হুদা দুলাল’র নেতৃত্বে যুগ্ম সম্পদক রেজাউল করিম রঞ্জুসহ প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দ,সাংবাদিক ইউনিয়ন দিনাজপুরের সভাপতি মাহফিজুল ইসলাম রিপন ও সাধারণ সম্পাদক মো. আতিউর রহমান আতিক’র নেতৃত্বে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ।  

সকালে আওয়ামী লীগ,বিএনপিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল,বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ অন্যান্য সংগঠনের ব্যক্তিবর্গ প্রভাত ফেরি নিয়ে শহীদ মিনারের দিকে এগিয়ে যায়। প্রভাত ফেরি শেষে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান দিনাজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ্যাড.মোস্তাফিজুর রহমান ফিজার এমপি ও সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আজিজুল ইমাম চৌধুরীর নেতৃত্বে জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ। এছাড়া শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান যুবলীগ,ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ,মহিলা লীগ,শ্রমিক লীগসহ আওয়ামী লীগের বিভিন্ন সহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মী। 

জেলা বিএনপি’র যুগ্ম আহবায়ক এ্যাড. মোফাজ্জল হোসেন,জেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক মোঃ মোকাররম হোসেন, আখতারুজ্জামান জুয়েল,বখতিয়ার আহম্মেদ কচি,মোস্তফা কামাল মিলনসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ,পৌর বিএনপি’র আহবায়ক আলহাজ¦ মাহবুব আহম্মেদ’র নেতৃত্বে পৌর বিএনপি’র নেতৃবৃন্দ, যুবদল,ছাত্রদল,শ্রমিকদল,জেলা মহিলাদলের সাধারণ সম্পাদক ও দিনাজপুর পৌরসভার কাউন্সিলর শাহিন সুলতানা বিউটি’র নেতৃত্বে মহিলাদলের নেতৃবৃন্দসহ বিএনপির বিভিন্ন অঙ্গসহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মী শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। 

শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর আবু বকর সিদ্দিক‘র নেতৃত্বে বোর্ডের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ, দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ, দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের পরিচালকের নেতৃত্বে 

কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ,দিনাজপুর সিভিল সার্জন মোঃ আব্দুল কুদ্দছ’র নেতৃত্বে সিভিল সার্জন অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ,২৫০ শয্যাবিশিষ্ট দিনাজপুর জেনারেল হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডাঃ নাজমুল ইসলামের নেতৃত্বে হাসপাতালের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ,বিএমএ দিনাজপুর ইউনিট নেতৃবৃন্দ,এলজিইডি,শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর,গনপূর্ত বিভাগ, সড়ক ও জনপথ বিভাগ,পানি উন্নয়ন বোর্ড,জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস, জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস,দিনাজপুর শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর,পল্লী বিদ্যুৎ সমিতিসহ বিভিন্ন সরকারী-বেসরকারী অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারী,বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের সদস্য গন।

দিনাজপুর জেলা আইনজীবী সমিতির নেতৃবৃন্দ,দিনাজপুর সরকারী কলেজ, দিনাজপুর সরকারী সিটি কলেজ, দিনাজপুর আদর্শ কলেজ,দিনাজপুর জিলা স্কুল,সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়,দিনাজপুর মিউনিসিপ্যাল হাই স্কুল (বাংলা স্কুল),জুবিলী উচ্চ বিদ্যালয়, চেরাডাঙ্গী উচ্চ বিদ্যালয়,সিকদারগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়সহ বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থী কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ,দিনাজপুর জেলা মোটর পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ,জেলা জাতীয় পার্র্টি,জাসদ, ওয়ার্ককার্স পার্টি,কমিউনিষ্ট পার্টি, জাগপা,বাসদসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান।এদিকে হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে যথাযোগ্য মর্যাদা ও ভাবগাম্বীর্যপূর্ণ পরিবেশে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত হয়।  

এছাড়াও বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, পেশাজীবী সংগঠন,সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন,স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন, সরকারী-বেসরকারী সংস্থাসহ ৩ শতাধিক প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। অনেকে ব্যক্তিগতভাবে ও পরিবারের সদস্যদের নিয়ে শহীদ মিনারে এসে শহীদদের প্রতি ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। অনেক ছোট ছোট শিশুকেও তাদের পিতামাতার সাথে এসে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে দেখা গেছে। তবে প্রানঘাতি করোনাভাইরাসের কারণে অন্যান্য এবারের চেয়ে এবারে শহীদ মিনারে মানুষের উপস্থিতি বেশ ছিল।

No comments

-->