শিরোনামঃ

নড়াইলে গৃহবধু আত্মহত্যার ২৪ দিন পর প্ররোচনার অভিযোগে থানায় মামলা শশুর গ্রেফতার

 নড়াইলে গৃহবধু আত্মহত্যার ২৪ দিন পর প্ররোচনার অভিযোগে থানায় মামলা শশুর গ্রেফতার। 


মো:অাজিজুর বিশ্বাস,স্টাফ  রিপোর্টার নড়াইল। 

নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার ইতনা গ্রামে গৃহবধু শারমিন আত্মহত্যার ঘটনার ২৪ দিন পর লোহাগড়া থানায় নিহতের পিতা বাদী হয়ে আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগে মামলা দায়ের করেছেন।


 এ ঘটনায় পুলিশ আত্মহত্যার শিকার শারমিনের শ্বশুর বাবলু শেখ কে (৫০) গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে।


এজাহার সূত্রে জানা গেছে, প্রায় তিন মাস পূর্বে লোহাগড়া পৌর এলাকার মশাঘুনি গ্রামের লিটন শেখের মেয়ে শারমিন(২৩)’র সাথে উপজেলার ইতনা গ্রামের বাবলু শেখের ছেলে হেলাল উদ্দিন ওরফে রিকাত শেখ(২৬)’র বিয়ে হয় । বিয়ের পর থেকে স্বামী রিকাত সহ শ্বশুর বাবলু শেখ, শ্বাশুড়ি রেহেনা বেগম ও চাচা শ্বশুর রহিম শেখ বাড়ীর কাজে ব্যবহৃত বিভিন্ন মালামাল দাবী করে আসছিল।


শারমিনের পরিবার দাবীকৃত মালামাল দিতে অপারগতা প্রকাশ করায় শারমিনের ওপর নেমে আসে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনসহ নানা অন্যায়-অত্যাচার। অব্যহত শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের এক পর্যায়ে গত ১৮ জানুয়ারি শারমিন শ্বশুর বাড়িতে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। এ ঘটনার ২৪ দিন পর আত্মহত্যার শিকার শারমিনের পিতা লিটন শেখ বাদী হয়ে ১১ ফেব্রুয়ারি (বৃহস্পতিবার) সন্ধ্যায় লোহাগড়া থানায় ৪ জনকে আসামী করে আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং- ১০, তারিখ ১১/০২/২০২১ ইং। 


মামলা দায়েরের পরই তদন্তকারী কর্মকর্তা ও লোহাগড়া থানার ইন্সপেক্টর(অপারেশন) হরিদাস রায় অভিযান চালিয়ে ১১ ফেব্রুয়ারি ইতনা এলাকা থেকে শারমিনের শ্বশুর এজাহারভুক্ত বাবলু শেখকে গ্রেফতার করে এবং শুক্রবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করেছেন। 


এ ব্যাপারে লাহাগড়া থানার ইন্সপেক্টর(অপারেশন) হরিদাস রায় বলেন, এজাহারভুক্ত বাকী আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যহত আছে।


No comments

-->