নতুন প্রকাশিতঃ

মেট্রোপলিটন পুলিশে কোন নিরপরাধ ব্যক্তি হয়রানির শিকার হওয়ার সুযোগ নেই।বিএমপি কমিশনার।

মেট্রোপলিটন পুলিশে কোন নিরপরাধ ব্যক্তি হয়রানির শিকার হওয়ার সুযোগ নেই।বিএমপি কমিশনার।।



প্রতিনিধি খান আরিফ : 


সম্পূর্ণ নিরপেক্ষভাবে আরও স্বচ্ছতার ভিত্তিতে  নির্ভেজাল সেবা নিশ্চিত করতে হবে, মেট্রোপলিটন পুলিশে কোন নিরপরাধ ব্যক্তি হয়রানির শিকার হওয়ার সুযোগ নেই।বিএমপি কমিশনার। 

২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২১ খ্রিঃ সকাল ১০ঃ৩০ ঘটিকায় পুলিশ কমিশনার কার্যালয় সম্মেলন কক্ষ বরিশালে,  মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।উক্ত সভায় সভাপতিত্ব করেন, মাননীয় বিএমপি কমিশনার জনাব মোঃ শাহাবুদ্দিন খান বিপিএম-বার মহোদয়। 

অপরাধ পর্যালোচনা সভায় তিনি বলেন,  মাদক নির্মূল তৎপরতা তথা চুরি বন্ধে, গোয়েন্দা বিভাগের পাশাপাশি সকল বিভাগের থানা ও ফাঁড়িগুলোতে আরও তৎপরতা বাড়াতে হবে। মামলা তদন্ত ও নিষ্পত্তিতে কারো কোন গাফিলতি বরদাস্ত করা হবে না। 

নির্ভেজাল সেবাদানে আন্তরিক সদিচ্ছা, স্বচ্ছতার মনোভাব নিয়ে কাজ করতে হবে। যে-কোন অপরাধ প্রতিরোধে আরও বেশি টহল নজরদারি বাড়াতে হবে। "সম্পূর্ণ নিরপেক্ষভাবে আরও স্বচ্ছতার ভিত্তিতে  নির্ভেজাল সেবা নিশ্চিত করতে হবে, মেট্রোপলিটন এলাকায় কোন নিরপরাধ ব্যক্তির হয়রানির শিকার হওয়ার সুযোগ নেই।" 

সহকারী পুলিশ কমিশনার বিএমপি এয়ারপোর্ট থানা জনাব নাসরিন জাহান এর  সঞ্চালনায় এ-সময়ে উপস্থিত ছিলেন, উপ-পুলিশ কমিশনার সাপ্লাই এন্ড লজিস্টিকস বিএমপি জনাব মোঃ জুলফিকার আলি হায়দার,  উপ-পুলিশ কমিশনার বিএমপি দক্ষিণ জনাব মোঃ মোকতার হোসেন পিপিএম সেবা, উপ-পুলিশ কমিশনার ট্রাফিক বিএমপি জনাব মোঃ জাকির হোসেন মজুমদার পিপিএম, উপ-পুলিশ কমিশনার উত্তর বিএমপি জনাব মোঃ খাইরুল আলম,  উপ-পুলিশ কমিশনার ক্রাইম অপারেশন এন্ড প্রসিকিউশন বিএমপি জনাব খান মুহাম্মদ আবু নাসের , উপ-পুলিশ কমিশনার ডিবি বিএমপি জনাব মোঃ মনজুর রহমান পিপিএম-বার সহ অন্যান্য শীর্ষ কর্মকর্তাবৃন্দ। এছাড়া ও উক্ত সভায় উপস্হিত ছিলেন বরিশাল বিভাগের বিভিন্ন দপ্তর থেকে আসা দায়িত্বশীল প্রতিনিধিবৃন্দ।

No comments

-->