শিরোনামঃ

চাঁদা না দেওয়ায় রাজ্জাক হাওলাদারকে কুপিয়ে জখম করলো সন্ত্রাসী এমদাদ-দেশবাংলা খবর২৪

চাঁদা না দেওয়ায় রাজ্জাক হাওলাদারকে কুপিয়ে জখম করলো সন্ত্রাসী এমদাদ-দেশবাংলা খবর২৪ 

রাকিব হাসান, মাদারীপুর। দাবি করা চাঁদার টাকা না দেওয়ায় আজ বৃহস্পতিবার সকাল ১১ঃ২৫মিনিটের দিকে  মাদারীপুরের কালকিনির উপজেলার উত্তর বাঁশগাড়ি ইউনিয়ন ৩নং ওয়ার্ডের আঃ রাজ্জাক হাওলাদারকে  (৫৫) কুপিয়ে মারাত্মক জখম করেছে আলোচিত সন্ত্রাস এমদাদ। মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।আলোচিত সন্ত্রারাস এমদাদ খা দীর্ঘদিন যাবৎ অত্র এলাকার মাদক ব্যবসায়ী, চোরাকারবারী, হত্যা, ধর্ষণ, ডাকাতিসহ একাধিক মামলার আসামী ছিলেন।

এমদাদ খা ওরফে এক চোখ কানা তার সাঙ্গপাঙ্গরা আ: রাজ্জাক হাওলাদার (সৃষ্টির)  কাছে থেকে দুই লক্ষ টাকা চাদা দাবি করে আসছিলো।কিন্তু ভুক্তভোগী আঃ রাজ্জাক হাওলাদার চাদা দিতে অস্বীকার করে এবং তার মাদক ব্যবসার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ায়। এই জন্য  সন্ত্রাসী এমদাদ খার মাদক ও ইয়াবা ব্যবসাসহ সন্ত্রাসী কার্যকলাপে কিছুটা ভাটা পরে।সন্ত্রাসী এমদাদ খার  যতো ক্ষোভ সবই ছিল আমার ওপর। আর সেই কারণে  আমি সন্ত্রাসী এমদাদ খার  নগ্ন হামলার স্বীকার হলাম।সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে গিয়ে এরকম নগ্ন হামলার স্বীকার হয়েছেন অসংখ্য ব্যবসায়ী ও সমাজের শান্তি প্রিয় মানুষ।

অত্র এলাকার আরেক হতভাগ্য কৃষক  আলাউদ্দিন আকন জানান , আমার ভাগনি শাহনাজ পারভীন কেয়ার পৈত্রিক সম্পত্তি দেখাশোনা করতাম। কারণ ওরা সবাই ঢাকায় বসবাস করে। বাড়িতে কোনো ঘরবাড়ি নেই, শুধু খালি জায়গায়  বিভিন্ন  প্রজাতির ফলজ ও কাঠ গাছ  আছে এগুলো দেখাশোনা  করতাম।কিন্তু আমি দেখাশোনা করার কারণে সন্ত্রাসী এমদাদসহ তার সাঙ্গপাঙ্গরা ভাগনির পৈত্রিক বসতভিটা দখল করতে না পেরে ও ঐ পরিত্যক্ত জায়গায় বসে মাদক সেবন ও কেনাবেচায় সমস্যা হওয়ার কারণে আমাকে দিনেদুপুরে দেশীয় অস্ত্র (সাবল)  দিয়ে পিটিয়ে আমার দু’টি পা ভেঙ্গে দেয়, আমি দীর্ঘদিন যাবৎ ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে এখন বাড়িতে আছি। আমি চিরদিনের জন্য পঙ্গু হয়ে গেছি। সন্ত্রাসী এমদাদসহ তার সাঙ্গপাঙ্গের বিরুদ্ধে।

এ ঘটনায় আজ বৃহস্পতিবার সকালে রাজ্জাক হাওলাদারের ছোট ভাই আঃ মান্নান হাওলাদার বাদী হয়ে তিন জনকে চিহ্নিত করে আর ৪/৫ জনকে অজ্ঞাত নামায় আসামি করে কালকিনি মডেল থানায় একটি এজাহার দায়ের করেন। কালকিনির  থানার ওসি মো.নাসির উদ্দীন মৃধা বলেন,  এজাহার দায়ের হয়েছে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

No comments

-->