নতুন প্রকাশিতঃ

দিনাজপুর পার্বতীপুরে জমিজমা সংক্রান্ত পক্ষ প্রতিপক্ষের সংঘর্ষ

 দিনাজপুর পার্বতীপুরে জমিজমা সংক্রান্ত পক্ষ প্রতিপক্ষের সংঘর্ষ 


রেজওয়ান আলী দিনাজপুর জেলা  প্রতিনিধি-দিনাজপুর পার্বতীপুরে জমিজমা সংক্রান্ত পক্ষ প্রতিপক্ষের সংঘর্ষ। জানা যায় যে,পাবর্তীপুর উপজেলার মমিনপুর গ্রামে জমিজমার বিরোধকে করে প্রতিপক্ষের সংঘর্ষে থানায় অভিযোগ দ্বায়ের।

উপজেলার মমিনপুর যশাইহাট মহল্লার ইন্দ্রজিত শর্মা ওরফে বাঙ্গালী শর্মা এর ছেলে দিনেশ শর্মার পাবর্তীপুর থানায় গত ১৬/০২/২০২১ ইং তারিখে দায়ের করেন।

১৮ই (ফেব্রুয়ারী) ন্যায় বিচারের স্বার্থে বাদী পক্ষ স্হানীয় সাংবাদিক গনের নিকট উক্ত অভিযোগ প্রদান করেন। কৃত ইজাহার সূত্র মতে জানা যায়,দিনেশ শর্মা মমিনপুর মৌজার দাগনং ৬৮২,রকম বস্তু,পরিমান ৫ শতক উক্ত জমি পৈয়ত্রিক সূত্রে বসতবাড়ী নির্মাণ করত পরিবার পরিজন নিয়ে দীর্ঘ দিন যাবৎ বসবাস করে আসছিল। অবশিষ্ট্য জমি গুলো পড়ে ছিল।  

উক্ত জমিতে তারা স্বরস্বতী পুজা উপলক্ষে অস্থায়ী মন্দির নির্মাণ করে পুজা উৎযাপন শুরু করেন। পূর্বের শত্রুতার জের ধরে সাগর সোহানী (৪০),বিপ্লব সোহানী (২২),পিতা সাগর সোহানী,রত্না রানী (৩৮),স্বামী বিপ্লব সোহানী,সর্ব সাং মমিনপুর যশাই হাট। তারা দলবদ্ধ হয়ে গত ১৬/০২/২০২১ ইং তারিখ সকাল সাড়ে ৯ টায় ধারালো সোরা,চাকু,লোহার রড,লাঠিশোটা নিয়ে দিনেশ শর্মার বাড়ীতে হামলা করেন এবং মন্দিরের ঘর ভেঙ্গে ফেলেন।

এতে প্রায় ৩০ হাজার টাকার ক্ষতিসাধন হয়। দিনেশ শর্মার ছোট ভাই দীলিপ শর্মা (৫৬) ও বড় ভাই নরেশ শর্মা (৬৮) ভাতিজার স্ত্রী পারুল শর্মা(২৫) বাধা দিতে গেল তাদেরকেও মারপিট করেন। উক্ত সময় প্রতিপক্ষ রত্না রানী তার ভাতিজার স্ত্রী পারুল শর্মার পরনে থাকা কাপড় চোপড় টানা হেঁচড়া ও বিবস্ত্র করেন। গলায় থাকা ৬ আনা ওজনের স্বর্ণের চেন ছিনিয়ে নেয়।

মারপিট চলাকালীন তারা বাঁচাও বাঁচাও বলে চিৎকার করলে স্থানীয় লোকজন তাদেরকে উদ্ধার করে পার্বর্তীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে ভর্তি করেন। বর্তমানে তারা চিকিৎধীন রয়েছেন বলে জানা যায়। এ ঘটনায় দিনেশ শর্মা ৫ জনকে আসামী করে পার্বতীপুর মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

এই ঘটনায় পার্বতীপুর থানায় যোগাযোগ করা হলে পাবর্তীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মকলেছুর রহমান জানান,অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থ গ্রহণ করা হবে। এমন ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছেন বলে এলাকাবাসী জানান।।

No comments

-->