শিরোনামঃ

জমে উঠেছে রাজশাহীর গোদাগাড়ী পৌর নির্বাচন

জমে উঠেছে রাজশাহীর গোদাগাড়ী পৌর নির্বাচন

আব্দুল আলিম গোদাগাড়ী(রাজশাহী) প্রতিনিধিঃ জমে উঠেছে রাজশাহীর গোদাগাড়ী পৌরসভা নির্বাচন।এই পৌরসভায় মেয়র পদে এবার চার জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তারা পৌরসভার উন্নয়ন, নাগরিক অধিকার নিশ্চিত এবং পৌরবাসীর দুঃখ-দুর্দশায় পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দিয়ে প্রচারণা চালিয়ে আসছেন। ১৪ ফেব্রুয়ারী বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে অনুষ্ঠিত হবে গোদাগাড়ী পৌরসভার ভোটগ্রহণ।

এখানকার ভোটাররা প্রথমবারের মতো ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) পদ্ধতিতে ভোট দেওয়ার স্বাদ গ্রহণ করবেন। ভোট নিয়ে সব বয়সের মধ্যে যথেষ্ট আগ্রহ দেখা গেছে। তবে, ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট দেওয়া কতটুকু নিরপেক্ষ হবে, তা নিয়েও শঙ্কা রয়েছে তাদের মধ্যে। প্রতীক বরাদ্দের পর থেকে জমে উঠেছে নির্বাচনি মাঠ। প্রচার-প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করছেন মেয়র, কাউন্সিলর প্রার্থী ও তাদের সমর্থকেরা। সব মিলিয়ে সরগরম গোদাগাড়ী তৃণমূলের রাজনীতি।

সরেজমিনে গোদাগাড়ী পৌর এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, পৌর এলাকায় এখন নির্বাচনি হওয়া বইছে। প্রার্থীরা লিফলেট বিতরণ, পোস্টার সাঁটিয়ে, ব্যানার টানিয়ে ও মাইকিংয়ের মাধ্যমে নির্বাচনি মাঠে নিজেদের প্রার্থী হওয়ার খবর জানাচ্ছেন। প্রার্থী ও তাদের সমর্থকরা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকেও চলাচ্ছেন জোর প্রচার-প্রচারণা। পাড়া-মহল্লার চায়ের দোকানও জমে উঠেছে নির্বাচনি আলোচনায়।

নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী চার জন হলেন,আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনীত প্রার্থী  গোদাগাড়ী পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব মো: অয়েজউদ্দিন বিশ্বাস (নৌকা), বিএনপি’র মনোনীত দলীয় প্রার্থী মো: গোলাম কিবরিয়া রুলু (ধানের শীষ), স্বতন্ত্র প্রার্থী গোদাগাড়ী পৌরসভার বর্তমান মেয়র মো: মনিরুল ইসলাম বাবু (নারিকেল গাছ), ও জামায়াতে ইসলামীর স্বতন্ত্র প্রার্থী ডক্টর মো: ওবায়দুল্লাহ (জগ)। 

 গোদাগাড়ী পৌরসভা নির্বাচনের সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোঃ মশিউর রহমান জানান, পৌর নির্বাচনে মেয়র পদে ৪ জন, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৩০ জন এবং সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ১৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।  ৯টি ওয়ার্ডে মোট ভোটার সংখ্যা ৩২ হাজার ২৫৬ জন ভোটার রয়েছেন। তার মধ্যে পুরুষ ভোটার ১৬ হাজার ৩’শ ৮১ জন আর মহিলা ভোটার ১৫ হাজার ৮’শ ৭৫ জন।

No comments

-->