শিরোনামঃ

করোনায় নেমে এলো করুন অভাব, শিশু রাব্বি এখন রিকশা চালক-দেশবাংলা খবর২৪

করোনায় নেমে এলো করুন অভাব, শিশু রাব্বি এখন রিকশা চালক-দেশবাংলা খবর২৪


 


বাহার উদ্দিন, ফুলপুর(ময়মনসিংহ) জেলা প্রতিনিধিঃ যেখানে হাতে বই, খাতা ও কলম থাকার কথা এবং খেলাধুলা করার সময়, সেখানে সংসারের অভাবের তাড়নায় ছোট্ট শিশু রাব্বির হাতে এখন অটোরিকশার ফিকাপ। শিশু আইন দণ্ডনীয় অপরাধ জেনেও পেটের দায়ে ফুুলপুরের ভাইটকান্দি ইউনিয়নের বাহাদুরপুর বাজার সংলগ্ন রিকশা চালক ইবাদুল মিয়ার ১০ বছরের ৩য় ছেলেও এখন রিকাশা চালান।

শিশু রাব্বি সংবাদকর্মী তপু রায়হান রাব্বি কে বলেন, দ্বিতীয় শ্রেণি পর্যন্ত পড়েছি আমি। পরে করোনার জন্য স্কুল বন্ধ হয়ে যাওয়ায় আর লেখাপড়া করতে পারিনি। এছাড়াও সংসারে অনেক অভাব। দিন আনি দিন খাই, মাঝে মধ্যে অনেক কষ্টও হয়ে যায়। আমরা দুই বোন, ৪ ভাই মা গৃহিণী। বড় বোনের বিয়ে হয়ে গেছে ও এক বোন ঢাকাই তার বাসায় থাকেন। 

বড় ভাই মিলন মিয়া(১৫) টাঙ্গাইল একটি মাদ্রাসায় ও ছোট একজন স্কুলে লেখাপড়া করছেন। তাই বাড়িতে বসে না থেকে এই ব্যাটারি চালিত অটো রিকশাটি আমদানি নিয়ে আমিও প্রতিদিন ভাড়ামারি। যাতে করে ভাবার একটু কষ্ট কম হয়। বাবা'রও তো বয়স হয়েছে, আবার বাবাও একটু অসুস্থ বলে মটি একদম খারাপ করে দিল । সে আরও বললো ভাই লেখাপড়া করার ইচ্ছা থাকলেও গরিবের জন্য লেখাপড়া নয়। সবাই বলে গরীব যত ছোটবেলা থেকেই কাজ করবে সে তত উপরের দিকে উঠতে পারবে।

No comments

-->