শিরোনামঃ

‘ভোটের মাঠে অনিয়ম হলেই অ্যাকশন’

‘ভোটের মাঠে অনিয়ম হলেই অ্যাকশন’

কাকন সরকারঃ

১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১,রাত পোহালেই শেরপুর ও শ্রীবরদী পৌরসভা নির্বাচনের ভোটগ্রহণ। এরইমধ্যে শেষ হয়েছে নির্বাচনী প্রচারণা। কেন্দ্রে পাঠানো শুরু হয়েছে নির্বাচনী সরঞ্জাম।এদিকে, বিভিন্ন প্রার্থীদের অভিযোগের ভিত্তিতে ঝুঁকিপূর্ণ ভোট কেন্দ্রের তালিকা করেছে জেলা নির্বাচন কমিশন।

শনিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা মোহাম্মদ শানিয়াজ্জামান তালুকদার বলেন, ভোটগ্রহণের জন্য সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। নির্বাচন সুষ্ঠু ও অবাধ করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, কোনো অনিয়ম বরদাস্ত করবে না নির্বাচন কমিশন। ভোটের মাঠে কোনো অনিয়ম দেখলেই নিয়ম অনুযায়ী অ্যাকশন নেবে কমিশন।

জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা বলেন, নির্বাচন সুষ্ঠ করতে শেরপুর পৌরসভায় ৩৫টি ভোট কেন্দ্রের জন্য তিন টিম র্যাব, তিন প্লাটুন বিজিবি, পর্যাপ্ত পুলিশ থাকছে। এছাড়া নয়জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও একজন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নির্বাচনী মাঠে উপস্থিত থাকবেন। শ্রীবরদী পৌরসভায় নয়টি ভোট কেন্দ্রে ২৪ জন র্যাব, দুই প্লাটুন বিজিবি, নয়জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও একজন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট উপস্থিত থাকবেন।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ের তথ্য মতে, শেরপুরে সাতজন মেয়র, কাউন্সিলর ৪৯ জন, সংরক্ষিত আসনে ১৮ জন প্রার্থী এবং শ্রীবরদী পৌরসভায় চারজন মেয়র, কাউন্সিলর ৩২ জন, সংরক্ষিত আসনে ১৬ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

আগামীকাল শেরপুর পৌরসভায় ৩৫টি ভোট কেন্দ্রের ১৯৪টি ভোট কক্ষে ৩৬ হাজার ৬৪০জন পুরুষ, ৩৯ হাজার ৯৮ জন নারী ভোটারসহ মোট ৭৫ হাজার ৭৩৮ জন ইভিএমে এবং শ্রীবরদী পৌরসভায় নয়টি ভোট কেন্দ্রের ৫৭টি ভোট কক্ষে ১০ হাজার ২২৯ জন পুরুষ, ১০ হাজার ৬৮০ জন মহিলা ভোটারসহ মোট ২০ হাজার ৯০৯ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন।

No comments

-->