শিরোনামঃ

মুক্তিযোদ্ধার নাতিকে মামলা ও জেলে দেয়ার প্রতিবাদে রাজশাহীতে মানববন্ধন

মুক্তিযোদ্ধার নাতিকে মামলা ও জেলে দেয়ার প্রতিবাদে রাজশাহীতে মানববন্ধন

রাজশাহী প্রতিনিধি: রাজশাহীর পুঠিয়ায় শহীদ মুক্তিযোদ্ধার নাতি মো. রাসেলের কাছ থেকে চাঁদা না পেয়ে নির্যাতন করে জেলে পাঠানোর প্রতিবাদে রাজশাহীতে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেছে বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ। মানববন্ধন থেকে রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হাবিবুর রহমান হাবিব খান ও পুঠিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলমের বহিস্কার ও শাস্তির দাবি করা হয়েছে।

শুক্রবার সকাল সাড়ে ১১টায় বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ কাটাখালী পৌরসভা শাখা এই মানববন্ধন কর্মসূচীর আয়োজন করেমানববন্ধন থেকে বক্তরা বলেন, মুক্তিযোদ্ধাদের কারণেই বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে। শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে নির্যাতনকারিদের কখনোই ছাড় দেয়া যাবে না। বক্তারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে দাবি করে বলেন- নির্যাতনকারি রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি হাবিবুর রহমান হাবিব খান ও পুঠিয়া উপজেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলমকে বহিস্কার ও শাস্তি দিতে হবে। অবিলম্বে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্য রাসেলের মামলা প্রত্যাহার করে তাকে মুক্তি দিতে হবে।

এসময় মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন পবা উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক নাফিউল নেহাল, কাটাখালী পৌর শাখার সভাপতি ওয়ালি আহমেদ নয়ন, সাধারণ সম্পাদক সাগর আলী,উপদেষ্টা তারিক জামিল প্রমূখ।

উল্লেখ্য, পুঠিয়ার শহীদ মুক্তিযোদ্ধা করম আলীর নাতি মো, রাসেল স্ত্রীর দেনমোহর নিয়ে মামলায় পড়লে তার মামলা সমঝোতার দায়িত্ব নেন জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি হাবিবুর রহমান হাবিব ও পুঠিয়া থানা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম। রাসেল দেন মোহরের দুই লাখ টাকা পরিশোধ করলেও হাবিব ও জাহাঙ্গীরের দাবিকৃত ৬০ হাজার টাকা চাঁদা দিতে পারেনি।

গত ১৩ জানুয়ারি রাতে রাসেলকে বাড়ীতে ডেকে নিয়ে পুলিশে ধরিয়ে দেয় হাবিব। এসময় তিনি একটি মামলা দায়ের করেন। এতে অভিযোগ আনা হয়, হাবিবকে খুন করতে রাসেল তার বাড়ীতে অবস্থান নিয়েছিলো। তবে রাসেলের পরিবার দাবি করেছে, ৬০ হাজার টাকা চাঁদা না পেয়ে ষড়যন্ত্র করে তাকে জেলে পাঠানো হয়েছে।

No comments

-->