শিরোনামঃ

মুজিববর্ষে বিনির্মাণে ক্ষুধামুক্ত-দারিদ্রমুক্ত সোনার বাংলা গড়ার প্রতিশ্রুতি-শেখ হাসিনা

মুজিববর্ষে বিনির্মাণে ক্ষুধামুক্ত-দারিদ্রমুক্ত সোনার বাংলা গড়ার প্রতিশ্রুতি-শেখ হাসিনা

রেজওয়ান আলী(দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ মুজিববর্ষে বিনির্মাণে ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত সোনার বাংলা গড়ার প্রতিশ্রুতি প্রদান করেছেন-মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।এ বিষয়ে দিনাজপুর জেলা প্রশাসক বলেন বাংলাদেশে একজন মানুষও গৃহহীন থাকবে না”- মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে দেশের সকল ভূমিহীন ও গৃহহীন মানুষের বাসস্থান নিশ্চিতকল্পে  সারা দেশে ৮,৮৫,৬২২টি এবং দিনাজপুর জেলায় মোট ১৩,০২১টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের তালিকা তৈরি করা হয়েছে। ১ম পর্যায়ে সারা দেশে মোট ৬৬,১৮৯টি পরিবারের জন্য একক গৃহ নির্মাণের অর্থ বরাদ্দ প্রদান করা হয়েছে।

মুজিববর্ষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে কমপক্ষে ২ শতাংশ খাসজমি বন্দোবস্ত প্রদানপূর্বক উক্ত জমিতে একক গৃহ নির্মাণের মাধ্যমে ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারসমূহকে পুনর্বাসনের লক্ষ্যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আশ্রয়ণ-২ প্রকল্প হতে দিনাজপুর জেলার ১৩টি উপজেলায় প্রথম পর্যায়ে মোট ৪,৭৬৪ টি ঘর নির্মাণে অর্থ বরাদ্দ পাওয়া দেওয়া হয়েছে অধিকাংশ গৃহ নির্মাণ কাজ প্রায় সমাপ্তির পথে। 

এসব গৃহের মধ্যে ৫ বা এর অধিক গৃহ যে সব স্থানে গুচ্ছ আকারে নির্মিত হচ্ছে,সেসব স্থানকে “জয় বাংলা ভিলেজ” নামে নামকরণ করা হয়েছে এবং এখন পর্যন্ত দিনাজপুর জেলার বিভিন্ন উপজেলায় মোট ১৭২টি “জয় বাংলা ভিলেজ”গড়ে উঠছে। বরাদ্দ প্রাপ্তির পর অবশিষ্ট ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের জন্য গৃহ নির্মাণের কাজ শুরু করা হবে এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা বাস্তবায়নে জেলার ভূমিহীন-গৃহহীন পরিবারের জন্য গৃহ প্রদান কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

আগামী ২৩শে জানুয়ারি,২০২১ ইং তারিখ ভিডিও কনফারেন্সিং এর মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সারা দেশে মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমি ও গৃহ প্রদান কার্যক্রম এর শুভ উদ্বোধন করবেন। উক্ত কার্যক্রমের অংশ হিসেবে দিনাজপুর জেলার ১৩টি উপজেলায় মোট ৩,০২২টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমি ও গৃহ প্রদান করা হবে। এ লক্ষ্যে ইতিমধ্যে পরিবারসমূহের অনুকূলে কমপক্ষে ২ শতক করে জমি বন্দোবস্ত প্রদান করা হয়েছে। ভিডিও কনফারেন্সিং এর মাধ্যমে অনুষ্ঠিতব্য উক্ত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বর্ণিত পরিবারসমূহের অনুকূলে সম্পাদিত কবুলিয়ত দলিল,নামজারি খতিয়ান এবং গৃহ প্রদানের সার্টিফিকেট প্রদান করা হবে। 

এ উপলক্ষ্যে ২৩শে জানুয়ারি,২০২১ ইং তারিখে সকাল ১০:৩০ ঘটিকায় সময় দিনাজপুর জেলার সকল উপজেলা পরিষদ হতে ভিডিও কনফারেন্সিং এর মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সাথে সংযুক্ত হবে। অনুষ্ঠানস্থলে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহার ‌‍‍“গৃহ”সমূহের উপকারভোগীগণ ও সংশ্লিষ্ট অন্যান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত থাকবেন। এ ছাড়াও ভিডিও কনফারেন্সিং এর মাধ্যমে দিনাজপুর সদর উপজেলার বনতারা আশ্রয়ণ প্রকল্পে পুনর্বাসিত ৮০টি পরিবারকে,বিরল উপজেলার বিশ্বনাথপুর আশ্রয়ণ প্রকল্পে পুনর্বাসিত ২৫ টি পরিবারকে এবং বোচাগঞ্জ উপজেলার জাবারীপুর বালিয়াপুকুর আশ্রয়ণ প্রকল্পে পুনর্বাসিত ৩০টি পরিবারকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে ব্যারাকসমূহে নির্মিত গৃহ ও জমি প্রদান করা হবে।

দিনাজপুর জেলায় ভূমি ও গৃহহীন মানুষদের স্বপ্ন পূরণে অবিস্মরণীয় অবদানের জন্য কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি, যিনি “আমার দেশের প্রতিটি মানুষ খাদ্য পাবে আশ্রয় পাবে,শিক্ষা পাবে,উন্নত জীবনের অধিকারী হবে-জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের এ স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। 

সার্বক্ষণিক দিকনির্দেশনার জন্য কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ও বিভাগীয় কমিশনার,রংপুর মহোদয়ের কার্যালয়ের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাগণ ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা। ধন্যবাদ জানাচ্ছি উপজেলা নির্বাহী অফিসার বৃন্দসহ উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির সদস্যবৃন্দ,স্থানীয় জন প্রতিনিধিবৃন্দ ও সংশ্লিষ্ট অন্যান্যদের প্রতি, যাদের অক্লান্ত শ্রমে বাস্তবায়িত হচ্ছে ভূমি ও গৃহহীনদের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহার। সরকারের উন্নয়নমূলক এ কার্যক্রমের শুরু হতে এতদসংক্রান্ত তথ্য বিভিন্ন প্রিন্ট/ইলেকট্রনিক গণমাধ্যমে জনসাধারণের নিকট তুলে ধরায় দিনাজপুর জেলার সাংবাদিকবৃন্দের প্রতি এবং যারা বিভিন্নভাবে সোসাল মিডিয়াতে প্রচার করেছেন,তাদের প্রতি ধন্যবাদ জ্ঞাপন করছি।

No comments

-->