শিরোনামঃ

অসাধু গণমাধ্যমগুলোর সাংবাদিক নিয়োগ ও কার্ড ব্যবসা

অসাধু গণমাধ্যমগুলোর  সাংবাদিক নিয়োগ ও কার্ড ব্যবসা 

শেখরচন্দ্র চন্দ্র সরকারঃ পৃথিবীতে বাঁচার তাগিদে মানুষ যে যার কর্ম জীবনে আবদ্ধ হয়। কর্ম জীনব মানেই কোন না কোন পেশার সাথে জীবনের সম্পৃক্ততা। সাংবাদিকতা তেমনি এক মহান পেশা। আর এই পেশার মূল প্রতিপাদ্য বিষয় হলো অনুসন্ধান।সাংবাদিকতা হলো একটি মহান পেশা অনুসন্ধান হলো যার মূলমন্ত্র। সাংবাদিকের পেশাগত দায়িত্ব হলো দেশের যে কোন সংবাদ গণমাধ্যম দ্বারা প্রকাশ করা। মূল কথা হল আপনি যে বিষয়ে বা যে ঘটনা অনুসন্ধান করে পত্রিকা-টিভি বেতার বা পোর্টাল গুলোতে তুলে ধরবেন তার যাচাই-বাছাই আবশ্যক। হুটহাট করে কিছু না জেনে সংবাদ প্রকাশ করা হলো এক ধরনের অমানবিকতা যার কারনে কোন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান সমাজের চোখে হতে পারে হেয় প্রতিপন্ন বা আপনি হতে পারেন হলুদ সাংবাদিক দলের একজন। 

একজন ভালো সাংবাদিকের কাজ সংবাদের সত্যতা যাচাই করা সংবাদসমূহ সম্পাদনা করা সংবাদ ও তথ্য সাপেক্ষে সাক্ষাৎকার গ্রহণ করা, বিশেষ প্রতিবেদন তৈরি, কলাম লেখা যাচাই-বাছাই করা তথ্য ও উপাত্ত বিশ্লেষণ করা সংবাদ এর মান রক্ষার্থে ভিডিও অডিও অথবা ছবি সংগ্রহ করা শুধু তাই নয় সংবাদ দাতার গোপনীয়তা বজায় রাখা। একটি সংবাদ সাধারণত মানুষের জীবনে গণমাধ্যমের প্রভাব পড়ে বস্তুনিষ্ঠ অনুসন্ধিৎসা খবর প্রকাশ করাই শ্রেয়। সমাজে ঘটে যাওয়া ঘটনা পৃথিবীর সকল প্রান্তে ঘটে যাওয়া ঘটনা খেলাধুলা বিনোদন ন্যায়-অন্যায় মতামত কে উপস্থাপন করা সাংবাদিক  তথা সংবাদপত্র বা গণমাধ্যম এর কাজ।বর্তমানে দেশের যে অবস্থা ওয়েব পোর্টাল,আই পি চ্যানেল ও নতুন নতুন পত্রিকার অভাব নেই। নেই কোনো ধরাবাধা নিয়ম,একজন সম্পাদক বা প্রকাশক এর  শিক্ষাগত যোগ্যতা এখানে প্রশ্ন বিদ্ধ!

সাংবাদিকরাও কম কিসে, শুদ্ধ বানান জানা নেই, সত্য মিথ্যা যাচাই নেই, অুনুসন্ধানের বালাই নেই, উপস্থাপনা করার যোগ্যতা নেই তারাই করছেন সাংবাদিকতা! অবশ্য সাংবাদিকতার ক্ষেএে লেখালেখির মনোভব অনুসন্ধানের প্রবল আকাঙ্ক্ষা আর নিজের ব্যক্তিত্ব উপস্থাপন (লেখনীর শ্রেষ্টত্ব) করে দখাতে পারলে লেখাপড়ার যোগ্যতা টা শিথিল যোগ্য হতে পারে!  

তার জলন্ত উদাহরণ জাতীয় কবি বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলাম, ছোটবেলায় তিনি দুুখু মিয়া নামে পরিচিত ছিলেন। ছোট বেলা থেকেই মেধাবী দুখুমিয়া গান গজল কবিতা লেখার চর্চা করতেন। তাই মানুষের প্রতিভা ও মেধাকে কখনো দাবিয়ে রাখা যায় না, সাংবাদিকতা করতে মেধাবী ও নির্ভীক হতে হবে জানতে হবে শিখতে হবে। বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বলেছেন দোলনা থেকে মৃত্যু পর্যন্ত শিক্ষার কোন শেষ নেই। 

আসল কথায় আসা যাক, এমনও দেখা যায় যে একটি ঘটনাকে সাংবাদিক মহল ভিন্ন ভিন্ন ভাবে উপস্থাপন করেন। যা সাধারণ মানুষের মধ্যে বিভ্রান্তিকর । সমাজে ঘটে যাওয়া আপত্তিকর ঘটনা অল্প কিছু টাকার বিনিময়ে ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করে  মুখরোচক সংবাদ প্রকাশ করেন তাই বাংলার মানুষ এখন সাংবাদিক সমাজের উপর একটু হলেও আস্থাহীন হয়ে পড়েছে। তবে সকল সাংবাদিকদের এই কাতারে ভাববেন না।

বর্তমানের নিবন্ধিত অনিবন্ধিত সংবাদপত্র পোর্টাল টিভি মিডিয়াগুলোতে চলছে রমরমা প্রেস আইডি কার্ড ব্যবসা। কথাটি অপ্রিয় হলেও সত্য। কার্ড  ব্যবসা বলতে দুই শ্রেনীর চতুরতা। এক শ্রেনির সম্পাদক ও প্রকাশক উপরের উল্লেখিত প্রেস খুলে করছেন প্রতারণা হাতিয়ে নিচ্ছেন মোটা অংকের টাকা। দ্বিতীয় শ্রেনির চতুরতা যারা নতুন সাংবাদিক হওয়ার আশায় টাকার বিনিময়ে অদক্ষ হওয়া সত্ত্বেও নামের সাথে সাংবাদিকতার পদবি লাগিয়ে প্রতারণার নতুন কৌশল খুঁজে বের করছেন।

আসলে বলতে গেলে সংবাদিকতা এক মহান পেশা যে পেশার সম্মান আছে বেতন নেই। তবে নিউজের ক্ষেএে তারা কিছু সম্মানী পেয়ে থাকেন। 

দেশে প্রতি বছরে কম বেশি শিক্ষার্থীরা মাধ্যমিক ও উচ্চ ডিগ্রী লাভ করে বের হচ্ছে। এই যে বেকারত্ব হার দিন দিন বেড়েই চলেছে তাই  সাংবাদিকতা টাকে অনেকে বেছে নিচ্ছেন পেশা হিসাবে। অরক্ষিত এই গণমাধ্যম যেন হাতের মোয়া  চাইলেই সাংবাদিক হওয়া  যায়! দেশের একটি বড় অংশ এই  গণমাধ্যম সংগঠন। কিন্তু  দেশের ক্লান্তি লগ্নথেকে এ পর্যন্ত গণমাধ্যমকে কোন সরকার পাত্তাই দেইনি। দেশের হাজর কোটি টাকার বাজেটেও  ঠাই হয়নি সংবাদকর্মীদের বা গণমাধ্যমের। 

আমি বাংলাদেশের সকল পোর্টাল, সাংবাদিক ও সম্পাদক সাহেব দের উদ্দেশ্যে বলবো দয়া করে আপনাদের প্রতিষ্ঠান (গণমাধ্যম) এর মান  বজায়  রাখার চেষ্টা করুন। সাংবাদিক নিয়োগের নামে আর কোন প্রতারনা করবেন না। আপনারাই সমাজের বিবেক। সমাজের সকল শ্রেণীর সকল পেশার মানুষেকে নিয়ে আপনাদের গবেষণা বা অনুসন্ধান, সংলাপ, মতামত তাই আর না কার্ড ব্যবসা একজন সঠিক মানুষের হাতে আপনার কোম্পানির দায়িত্ব আপনার প্রতিষ্ঠান এর দায়িত্ব আপনার অর্পণ করুন।

এই পেশায় যারা পুর্বে থেকে জড়িত অভিজ্ঞ তাদের শ্রদ্ধার সাথে বলি নতুনদের অবহেলা করবেননা।আজকের শিশুই আগামি দিনের ভবিষ্যৎ। জ্ঞান চর্চা করলে করো মেধা আটকানো যায়না। আর কলম হলো জ্ঞান চক্ষুর বহিপ্রকাশ।

শেখর চন্দ্র সরকার 

লেখক সাংবাদিক 

No comments

-->