নতুন প্রকাশিতঃ

শেরপুরে জননীর জন্য পদযাত্রা র‍্যালি ও লিফলেট বিতরণ

শেরপুরে জননীর জন্য পদযাত্রা র‍্যালি ও লিফলেট বিতরণ

কাকন সরকার , শেরপুর প্রতিনিধি: শেরপুরে জরায়ু ক্যান্সার প্রতিরোধে ভলান্টিয়ার ফর বাংলাদেশ (ভিবিডি) শেরপুর জেলার আয়োজনে সচেতনতা মূলক র‍্যালি ও লিফলেট বিতরণ কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। আজ ২৬ জানুয়ারি ২০২১ তারিখ সকাল ১১ টাই ভলান্টিয়ার ফর বাংলাদেশ শেরপুর জেলার সভাপতি নাঈমুর রহমান তালুকদারের সঞ্চালনায় থানামোড় ডায়বেটিস হসপিটাল থেকে শুরু হওয়া এ র‍্যালিতে প্রায় অর্ধ শতাধিক ভলান্টিয়ার সক্রিয় অংশগ্রহণ করার মধ্যে দিয়ে সদর হাসপাতালে র‍্যালিটি শেষ হয়। এ সময় অনলাইনে সার্বক্ষণিক এ র‍্যালি পরিচালনা করেন, ডা. হাবিবুল্লাহ তালুকদার রাসকিন

প্রধান সমন্বয়কারী জননীর জন্য পদযাত্রা ও বিভাগীয় প্রধান ক্যান্সার ইপিডেমিওলজি বিভাগ জাতীয় ক্যান্সার গবেষণা ইনস্টিটিউট হাসপাতাল, মহাখালি, ঢাকা।র‍্যালিতে অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, শেরপুর ডায়াবেটিস হাসপাতাল এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি সমাজ-কর্মী মাদার তেরেসা জনাব রাজিয়া সামাদ ডালিয়া, অধ্যাপক ডা. সাবেরা খাতুন,বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের গাইনি অনকোলজি বিভাগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ও চেয়ারম্যান কমিউনিটি অনকোলজি সেন্টার ট্রাস্ট,ডাঃ মোঃ মোবারক হোসেন, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা শেরপুর ।আর উপস্থিত ছিলেন,ভিবিডি শেরপুর জেলার সহ-সভাপতি মোঃ আজমল হোসেন, মানবাধিকার-কর্মী তাহমিনা জলি, শাহরিয়ার হোসেন শিশির,সাধারণ সম্পাদক ভিবিডি, সদস্য মশিউর রহমান সজিব তালুকদার, সুহেল রানা, কাব্য আহম্মেদ প্রমুখ।

এ সময় রাজিয়া সামাদ ডালিয়া কার্যক্রম এর সফলতা কামনা করে বলেন, জানুয়ারি মাস-জরায়ুমুখ ক্যান্সার সচেতনতার মাস হিসেবে সারা বিশ্বে পালিত হচ্ছে। জরায়ুর ক্যান্সার বা জরাায়ু মুখ ক্যান্সার,যাকে ইংরেজিতে বলা হয় সার্ভাইকাল ক্যান্সার, নারীদের জন্য এক ভয়াাবহ মরণব্যাধি। বিশ্বব্যাপী নারীদের মৃত্যুর অন্যতম প্রধান কারণ হলো এই ক্যান্সার। উন্নয়নশীল দেশের মহিলাদের মাঝে যেসব ক্যান্সার অধিক পরিমাণে দেখা যায়, তার মধ্যে এটি দ্বিতীয়। আমাদের মতো উন্নয়নশীল দেশের ক্যান্সার আক্রান্ত নারীদের শতকরা ৩০ ভাগই হচ্ছেন জরায়ুমুখের ক্যান্সারের শিকার। নারীদের চতুর্থ সর্বাধিক ক্যান্সার এবং ক্যান্সারের মৃত্যুর দশম সর্বাধিক কারণ এই জরায়ুর ক্যান্সার। বাংলাদেশে প্রতিবছর জরায়ুমুখ ক্যান্সারে প্রায় ৬ হাজারেরও বেশি নারী মৃত্যুবরণ করেন এবং প্রতিবছর ১২ হাজারেরও বেশি নারী নতুনভাবে চিহ্নিত হন। আবার যে কোন সময় এই রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বহন করে চলছেন প্রায় ৬০ মিলিয়ন নারী। বিশ্বে প্রতি দুই মিনিটে একজন নারী জরায়ুমুখ ক্যান্সারে মৃত্যুবরণ করেন।

ডাঃ মোবারক হোসেন বলেন,প্রতিবছর প্রায় ৫০ লক্ষাধিক নারী নতুন করে আক্রান্ত হন। আশ্চর্যজনক কথা হল, আমরা অনেকেই জানি না রোগটি প্রতিরোধ সম্পর্কে, এ রোগটি কেন হয়, এর লক্ষণ কি, এর চিকিৎসা কি-এ নিয়ে সাধারণ জনগণের জ্ঞান খুবই নগণ্য। বিশেষ করে নিম্নবিত্ত শ্রেণীর মানুষেরা, যাদের মধ্যে এ রোগের ঝুঁকি অনেক বেশি, তারাও এ সম্পর্কে কিছুই জানেন না। ফলাফল- হাজারো মায়ের অকালে মৃত্যু। কিন্তু ৯০ ভাগ ক্ষেত্রে শুধুমাত্র সচেতনতা বৃদ্ধির মাধ্যমে এই ভয়াবহতা প্রতিরোধ করা সম্ভব হবে।

ভিবিডি সভাপতি নাঈমুর রহমান তালুকদার বলেন, পরর্বতী সময়ে এমন আরো সচেতনতা মূলত ও মানবতার কল্যাণে ভলান্টিয়ার ফর বাংলাদেশ শেরপুর কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

No comments

-->