শিরোনামঃ

দিনাজপুরে করোনা কালীন খাদ্য উৎপাদনে তিন ফসলী জমিতে সরিষার বাম্পার ফলন

দিনাজপুরে করোনা কালীন খাদ্য উৎপাদনে তিন ফসলী জমিতে সরিষার বাম্পার ফলন

রেজওয়ান আলী,দিনাজপুর জেলা প্রতিনিধি-উত্তরের দিনাজপুরে বাড়তি শস্য ভান্ডারে ফসল হিসেবে বেশ জনপ্রিয়তায় স্হান পেয়েছে। কোভিড-১৯,ঘন কুয়াশা শৈত্য প্রবাহে প্রতিকূল আবহাওয়া থাকা ছাড়াও অঞ্চলে এবার সরিষার বাম্পার ফলনে কৃষকের মুখে হাসি ফুটে উঠেছে। 

এর ধাঁরাবাহিকতার সূত্র মতে গত বছর আশানুরূপ ফলন ও ভাল দাম পাওয়ায় এবার জেলায় ব্যাপক হারে বেড়ে গেছে সরিষার চাষ। দিনাজপুরের পথে-ঘাটে সরিষা ফুলের মৌ মৌ গন্ধ আর বিস্তৃর্ণ মাঠজুড়ে হলুদ রঙের সমারোহ দৃশ্যমান হয়েছে এলাকার চিত্র। 

দৃষ্টিনন্দিত এ দৃশ্যে যেন প্রাণ জুড়িয়ে যায়। বাড়তি ফসল হিসেবে সরিষা চাষ করছেন কৃষকেরা। সরিষা থেকে অনেকে মধু আহরণ করেন। মধু আহরণে অনেকটা বাড়তি আয়ের পাশাপাশি সরিষার ফলন বৃদ্ধিতে সহায়তা পাচ্ছেন কৃষকেরা। অত্যাধুনিক পদ্ধতিতে উচ্চ ফলনশীল সরিষা চাষে কৃষকদের পরামর্শ প্রদান ও সহায়তা করে আসছে কৃষি বিভাগের কর্মকর্তা গণ। 

উক্ত বিষয়ে দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলার কৃষি কর্মকর্তা আবু রেজা আসাদুজ্জামান জানান,আমনের পর পরিত্যক্ত জমিতে সরিষা চাষে বেশ লাভবান হচ্ছেন কৃষক গণ। সরিষা চাষে সংশ্লিষ্ট কৃষি বিভাগের পরামর্শ ও সহযোগিতা অব্যাহত থাকলে বাজার মূল্য ভাল পেলে অঞ্চলের সরিষা চাষের পরিধি আরও বৃদ্ধি পাবে মর্মে আশা করছেন উৎপাদনের সাথে জাড়িত থাকা কৃষক ও উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মোঃ শাহিনুর রহমান ও মোক্তাদির। 

এ বিষয়ে সরিষা কৃষকগনের নিকট জানতে চাইলে তারা বলেন,গত বছরে আমরা সরিষা চাষে ভাল ফলন ও বাজার মূল্যও ভালো পেয়েছি। এবারেও প্রত্যাশা করছি তেমন ভালোই হবে। 

No comments

-->