নতুন প্রকাশিতঃ

শেষ মুহুর্তেই জমে উঠেছে ভবানীগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচনী প্রচারণা

 শেষ মুহুর্তেই জমে উঠেছে ভবানীগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচনী প্রচারণা


রাজশাহী প্রতিনিধি:

শেষ মুহুর্তে জমে উঠেছে রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার ভবানীগঞ্জ পৌরসভায় নির্বাচনী প্রচারনা । মেয়র পদে চারজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করলেও তিনজন প্রার্থী ফেভারিট হিসেবে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন বলে এলাকার সাধারন মানুষ ও ভোটারেরা ধারনা করছেন। কে হবেন ভবানীগঞ্জ পৌরসভার পিতা ? এই নিয়েই চলছে ভোটার ও সাধারন মানুষের মধ্যে জল্পনা কল্পনা।


আগামী ১৬ জানুয়ারী রোজ শনিবার ভবানীগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনের তারিখ নির্ধারন করা হয়েছে। আ’লীগের একক নৌকার প্রার্থী হিসেবে পৌর আ’লীগের সভাপতি, উপজেলা আ’লীগের সহসভাপতি ও পৌর মেয়র আব্দুল মালেক মন্ডলকে মনোনয়ন দেয়া হয়। নির্বাচনী এলাকায় আধিপত্ত্ব বিস্তার করলেও পৌর আ’লীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক মামুনুর রশিদ মামুন স্বতন্ত্র প্রার্থী থাকায় নির্বাচনী মাঠে বেগ পেতে হচ্ছে তাকে। সমানা সমান আধিপত্ত্ব বিস্তার ও জন সমর্থন পাওয়ায় বেকায়দা পড়তে হচ্ছে নৌকার প্রার্থী আব্দুল মালেক মন্ডলকে।


মাথার ঘাম পায়ে ফেলেই তাকে নির্বাচনে মেয়র নির্বাচিত হতে হবে বলে এলাকার ভোটার ও সচেতন মানুষ মনে করছেন। কেউ কেউ নৌকার প্রার্থী আব্দুল মালেক মন্ডলের উন্নয়নের দিক লক্ষ করে আগামী নির্বাচনে তাকে আবারো ভোট দেয়ার চিন্তা ভাবনা করছেন। অপর দিকে মামুনুর রশিদ মামুনকে দলীয় কোন পদ না দেয়ায় এলাকার আ’লীগ সমর্থিত ব্যক্তিদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।


যার কারনেই পৌরসভার আ’লীগের একাংশের নেতাকর্মীরা মামুনের পক্ষে কাজ করছে বলে জানা গেছে। নৌকা ও স্বতন্ত্র প্রার্থীর জন সমর্থন সমান হওয়ায় সাধারন মানুষের মধ্যেই গুঞ্জন শুরু হয়েছে। অন্যদিকে জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি’র একক প্রার্থী হিসেবে সাবেক মেয়র আব্দুর রাজ্জাককে দলের মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। আব্দুর রাজ্জাক দলের একক প্রার্থী হিসেবে পৌর নির্বাচনে শক্ত অবস্থানে রয়েছেন বলে বিএনপি’র জেলা পর্যায়ের নেতাকর্মীরা মনে করছেন।


কিন্তু দলীয় কোন্দলের কারনে বিএনপি’র একক প্রার্থী হলেও শক্ত অবস্থান লক্ষ করা যাচ্ছে না। দলীয় কোন্দলের কারনেই বিএনপি’র প্রার্থী মাঠ পর্যায়ে নড়বড়ে অবস্থায় রয়েছেন বলে জানা গেছে। বিএনপি’র স্থানীয় নেতারা মনে করছেন, সুষ্ঠ নির্বাচন হলে তাদের প্রার্থী একক ভাইে বিজীয় হবে বলে মনে করছেন। শুরুর দিকে বিএনপি’র নেতাকর্মীদের মাঠে দেখা না গেলেও বর্তমানে তারা সংঘবদ্ধ হয়ে ধানের শীষের ভোটের জন্য মাঠে নেমেছে।


আ’লীগ সমর্থিত ও স্বতন্ত্র প্রার্থীর মধ্যে কোন্দলের কারনেই বিএনপি’র প্রার্থী শক্ত অবস্থানে রয়েছে বলে এলাকার সাধারন ভোটারেরা ধারনা করছেন। তবে সাধারন ভোটারেরা সুষ্ঠ নির্বাচনের জন্য নির্বাচন কমিশনসহ নির্বাচনে দায়ীত্বে থাকা কর্মকর্তাদের কাছে আহবান জানিয়েছেন।

No comments

-->