নতুন প্রকাশিতঃ

কুড়িগ্রামের ভুরুঙ্গামারীতে অগ্নিকান্ডে প্রায় ৩০ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি

 কুড়িগ্রামের ভুরুঙ্গামারীতে অগ্নিকান্ডে প্রায় ৩০ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি


রুহুল আমিন রুকু, কুড়িগ্রাম জেলা প্রতিনিধিঃ

কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে অগ্নিকান্ডে বসতবাড়ি ও গুদাম ভস্মীভূত হয়েছে। এতে আনুমানিক ৩০ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। মঙ্গলবার মধ্যরাতে উপজেলার বাসস্টান্ডের পূর্বদিকে পশ্চিম গছিডাঙ্গা এলাকায় ওই অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। অগ্নিকান্ডে সেকান্দার আলী ব্যাপারীর ৮টি কক্ষ বাড়ি পুড়ে যায়। 

অগ্নিকান্ডের খবর পেয়ে পার্শ্ববর্তী  নাগেশ্বরী উপজেলা থেকে ফায়ার সার্ভিসের একটি দল ঘটনাস্থলে এসে প্রায় এক ঘন্টার প্রচেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে। বাড়ির মালিক সেকান্দার আলী ব্যাপারী জানান, বাসাটির ৪টি কক্ষে সোনাহাট স্থল বন্দরের সিএন্ডএফ এজেন্ট রাবিউল ইসলাম ভাড়া থাকতেন। এছাড়াও সেখানে কুমিল্লা বেকারী ও শিশির ট্রেডার্সের গুদাম ছিল। অগ্নিকান্ডে বাড়ির ৮টি কক্ষই ভস্মীভূত হয় এবং সবমিলে প্রায় ৩০ লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বরে তিনি দাবি করেন। ভাড়াটিয়া রাবিউল ইসলাম ও কুমিল্লা বেকারীর স্বত্বাধিকারী দীন মোহাম্মদ জানান, অগ্নিকান্ডে বাসায় থাকা নগদ ১ লাখ ১০ হাজার টাকা, একটি মোটর সাইকেল, আসবাপত্র ও জমির দলিলসহ  গুদামে থাকা তেল, ডালডা, চিনি, ময়দা, পলিথিন ও অন্যান্য মালামাল পুড়ে গেছে। এতে তাদের প্রায় ১৫ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। শিশির ট্রেডার্সের মালিক শামসুর রহমান শিশির জানান, আমার প্রতিষ্ঠানে বিভিন্ন কোম্পানীর প্রায় ৫ লাখ টাকার ভোগ্য পণ্য ছিল। আগুনে সব পুড়ে গেছে। অগ্নিকান্ডের খবর পেয়ে পার্শ্ববর্তী  নাগেশ্বরী উপজেলা থেকে ফায়ার সার্ভিসের একটি দল ঘটনাস্থলে এসে প্রায় এক ঘন্টার প্রচেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে। এ ব্যাপারে নাগেশ্বরী ফায়ার সার্ভিস স্টেশন অফিসার ইমন মিয়া জানান, আগুন লাগার কারণ জানা যায়নি। তদন্ত করে আগুন লাগার প্রকৃত কারণ উদঘাটন করা হবে।

No comments

-->