শিরোনামঃ

৪ ধরনের ভয়াবহ ধাক্কা-দুর্যোগ সামলাতে সক্ষম পদ্মাসেতু

৪ ধরনের ভয়াবহ ধাক্কা-দুর্যোগ সামলাতে সক্ষম পদ্মাসেতু

অনলাইন ডেক্সঃ প্রাকৃতিক দুর্যোগ ভূমিকম্পসহ একসঙ্গে ভয়াবহ চার ধরনের ধাক্কা-দুর্যোগ সামলে নেওয়ার সক্ষমতা নিয়ে তৈরি করা হচ্ছে পদ্মাসেতু। মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম এ তথ্য জানান।

পদ্মাসেতু নির্মাণকারী কর্তৃপক্ষ বাংলাদেশ সেতু বিভাগের সাবেক এই সচিব জানান, সমসমায়িক বিশ্বে কোনো নদীতে নিমির্ত সবচেয়ে বড় প্রকল্প পদ্মাসেতু। নির্মাণাধীন এ সেতুকে বলা হয় বাংলাদেশের ‘স্বপ্নের সেতু’। সেতুর ৪১টি স্প্যানের সবগুলো এখন বসিয়ে দেওয়ার পর এটি লম্বায় ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটারের পূর্ণাঙ্গ কাঠামো পেয়েছে। কংক্রিট কাঠামোর খুঁটি ও ইস্পাতের স্প্যানের এই সেতু এতই শক্তিশালী যে রিখটার স্কেলে ৮ মাত্রার ভূমিকম্প সহনশীল।

তিনি আরও বলেন, ‘যদি কখনো রিখটার স্কেলে ৮ মাত্রার ভূমিকম্প হয়। আর ঠিক তখনই যদি পিলারের নিচে থেকে ৬৫ মিটার মাটি সরে যায়। একই সময় যদি পুরো সেতু রেল এবং যানবাহনে লোড থাকে। ওই সময় ৫ হাজার মেট্রিক টন ওজনের আরও একটি জাহাজ এসে সেতুর পিলারে ধাক্কা মারে তাহলেও পদ্মাসেতুর কিছুই হবে না।’

২০১৫ সালে ডিসেম্বরে সেতুটির নির্মাণ শুরু হওয়ার পর শেষ হওয়ার কথা ছিল ২০১৮ সালে। কিন্তু সেতুর খুঁটি নিয়ে জঠিলতা দেখা দেওয়ায় কাজ শেষ হতে দেরি হয়। আগামী বছর চালু হবে পদ্মাসেতু। এখন পর্যন্ত সেতুর ৯১ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে। নদী শাসন শেষ হয়েছে ৭৫ দশমিক ০৫ শতাংশ এবং প্রকল্পের সার্বিক অগ্রগতি ৮২ দশমিক ৫০ শতাংশ। এই সেতু বাংলাদেশের ১ দশমিক ২৩ শতাংশ প্রবৃদ্ধি বাড়াবে।

No comments

-->