শিরোনামঃ

সারাদেশ তথা দিনাজপুরের তাপমাত্রা দেশের সর্বনিম্ন ৮ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস

সারাদেশ তথা দিনাজপুরের তাপমাত্রা দেশের সর্বনিম্ন  ৮ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস 

রেজওয়ান আলী, দিনাজপুর জেলা প্রতিনিধিঃ সারাদেশে কনকনে শীতে বর্তমানে দিনাজপুরে তীব্র শীতে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। তীব্র শীত আর ঘনকুয়াশায় মানুষ ঘর থেকে বের হওয়া দূরহ হয়ে উঠেছে। অদ্য ২৮শে জানুয়ারি বৃহস্পতিবার দিনাজপুরে দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৮ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে।  দিনাজপুরে গত দু’দিন থেকে দুপুর পর্যন্ত সূর্যের মূখ দেখা যাচ্ছে না। 

বিকেলে সূর্য খানিকটা উঁকি দিলেও কিছুক্ষন পর আবার মিলিয়ে যাচ্ছে। সূর্যের কোন তাপ নেই। সূর্য না উঠায় তীব্র শীতের কারণে মানুষ ঘর থেকে বের হতে পারছে না। বিশেষ করে খেটে খাওয়া মানুষজন পড়েছে বিপাকে। কাজে যেতে না পারায় পরিবার-পরিজন নিয়ে কষ্টে দিনাতিপাত করছেন এসব খেটে খাওয়া মানুষ। ঘনকুয়াশার কারণে বেলা ১০টা পর্যন্ত যানবাহনগুলোকে হেড লাইট জ্বালিয়ে চলাচল করতে দেখা গেছে। 

শৈত্যপ্রবাহের কারণে তীব্র শীতে মানুষের পাশাপাশি গবাদি পশুসহ অন্যান্য পশুপাখিরা রয়েছে দারুন কষ্টে। অনেকে শীত নিবারনের জন্য গবাদি পশুর গায়ে চটের বস্তা পড়িয়ে দিয়েছেন। সন্ধ্যা নামার সাথে সাথে মানুষ ঘরে ফিরে যাচ্ছে। সন্ধ্যার পর বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া কেউকে ঘর থেকে বের হতে দেখা যায় না। এদিকে তীব্র শীতে শিশু ও বৃদ্ধরা শীতজণিত রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। ফলে শীতজণিত রোগে আক্রান্ত হয়ে দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট দিনাজপুর জেনারেল হাসপাতালে রোগির সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে। 

দিনাজপুর আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তোফাজ্জল হোসেন জানান, বৃহস্পতিবার (২৮ জানুয়ারি) সকাল ৯টায় দিনাজপুরে সর্বনিম্ন তাপমাত্র রেকর্ড করা হয়েছে ৮ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা সারাদেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা। এছাড়াও দিনাজপুরের বাতাসের আদ্রতা ছিল ১০০ শতাংশ। তিনি জানান, দিনাজপুর, ঠাকুরগাঁও,পঞ্চগড়সহ দেশের বেশ কিছু এলাকায় মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বিরাজ করছে। এই শৈত্য প্রবাহ আরো কয়েকদিন অব্যাহত থাকতে পারে। এছাড়া বৃহস্পতিবার সর্ব উত্তরের জেলা পঞ্চগড়ের তেতুলিয়া উপজেলায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৮ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

No comments

-->