নতুন প্রকাশিতঃ

ঝিনাইদহে প্রেমিকের রহস্যজনক মৃত্যু মেনে নিতে না পারাই প্রেমিকার আত্মহত্যা।

 ঝিনাইদহে প্রেমিকের রহস্যজনক মৃত্যু মেনে নিতে না পারাই প্রেমিকার আত্মহত্যা। 



 মোঃ আনোয়ার হোসেন , ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধি -


ঝিনাইদহ সদর উপজেলার কাতলামারি গ্রামে প্রেমিক সুমন এর রহস্যজনক মৃত্যুতে কষ্ট সইতে না পেরে ৩ দিনের মাথায় প্রেমিকা মিনা আক্তার গলায় ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করেছে।

স্থানীয়রা জানান, সদর উপজেলার কাতলামারী গ্রামে মৃত সুমনের কসমেটিক্স এর দোকান ছিল। মৃত সুমন ওই গ্রামের কৃষ্ণকুমারের  ছেলে। দোকানে আসা যাওয়ার কারণে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে একই গ্রামের মকবুল হোসেনের মেয়ে মিনা আক্তারের। গত মে মাস থেকে তাদের এই সম্পর্ক শুরু হয়। দিন যাওয়ার সাথে সাথে গভীর হয় সম্পর্ক। মিনার পরিবারের লোকজন বিষয়টি টের পেয়ে চাপ দিতে শুরু করে। গত ৩০ নভেম্বর রাতে দোকান বন্ধ করে মিনা আক্তারের সাথে দেখা করতে যায় সুমন। তারপর রাত ১১ টার দিকে প্রেমিকা মিনার ঘরের পিছনে  একটি গাছের  নিচে অসুস্থ অবস্থায় মাটিতে পাওয়া যায় । পরে আশেপাশের লোকজন  তাকে উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত   চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে। সুমন মারা যাওয়ার পর বিষয়টি মেনে নিতে পারেনি মিনা। বিমর্ষ হয়ে পড়ে সে। অবশেষে বুধবার ভোররাতে নিজ ঘরের ফ্যানের হুকের সাথে গলায় ওড়না ফাঁস নিয়ে সে আত্মহত্যা করে।

ঝিনাইদহের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আনোয়ার সাঈদ বলেন, সুমনের লাশের ময়না তদন্ত করা শেষ না হওয়া পযন্ত কিছু নিশ্চিত ভাবে বলা যাচ্ছে না যে সুমন আত্মহত্যা করেছিল কিনা। সেই সাথে  মিনার লাশও  ময়না তদন্ত শেষে বিস্তারিত জানতে পারবেন।

No comments

-->