নতুন প্রকাশিতঃ

চিলাহাটি-হলদিবাড়ি রুটে ট্রেন চলাচল উদ্ভোধন

 চিলাহাটি-হলদিবাড়ি রুটে ট্রেন চলাচল উদ্ভোধন

বিশেষ প্রতিনিধি: দীর্ঘ অপেক্ষার পর বাংলাদেশের নীলফামারীর চিলাহাটি ও ভারতের হলদিবাড়ি রুটে ট্রেন চলাচল উদ্বোধন করা হয়েছে।বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় অনুষ্ঠিত ভার্চুয়াল বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি যৌথভাবে এ রেলপথের উদ্বোধন করেন।

এ সময় ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে ডিজিটাল প্রদর্শনীর উদ্বোধন করা হয়। সে সঙ্গে বঙ্গবন্ধুর ছবিসংবলিত ডাকটিকিটেরও উদ্বোধন হয় এ অনুষ্ঠানে।

এর আগে সকালে রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে কৃষি, জ্বালানি, সামাজিক উন্নয়ন ও হাতি সংরক্ষণ এবং দ্বিপক্ষীয় সহায়তা-সম্পর্কিত সাতটি সমঝোতা স্মারক সই হয়। 

এ ঘোষণার মধ্য দিয়ে দীর্ঘ ৫৫ বছর পর এ রুটে পুনরায় ভারত-বাংলাদেশে মালবাহী ট্রেন চলাচল শুরু হলো। এ রেলপথ চালুসহ অবকাঠামো নির্মাণ ব্যয়ে হয়েছে ৮০ কোটি টাকা।

আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন উপলক্ষে নতুন সাজে সেজেছে নীলফামারীর চিলাহাটি রেলস্টেশন। উদ্বোধনী দিনের জন্য ৩০টি এমটি র‌্যাকসহ ইঞ্জিনকে বর্ণিল সাজে সাজানো হয়। চিলাহাটি জিরো পয়েন্ট পর্যন্ত ৭ কিলোমিটার নতুন রেলপথ স্থাপন করাসহ ভিআইপি গেস্টহাউস নির্মাণ করা হয়েছে।

এদিকে আংশিক বাকি থাকলেও জোরেশোরেই এগিয়ে চলেছে রেলের অবকাঠামো নির্মাণকাজ। এতে রয়েছে অত্যাধুনিক হাইটেক মডেলের রেলস্টেশন, দোতলা টিএক্স আর অফিস কক্ষ, স্টাফদের থাকার ২০টি রুম, কাস্টম অফিস ও ওভারব্রিজ। এ ছাড়া ইয়ার্ডে বসবে আরও ৫টি লাইন।

রেলওয়ের পশ্চিমাঞ্চলের মহাব্যবস্থাপক মিহির কান্তি গুহ বলেন, “১৯৬৫ সালে পাকিস্তান-ভারত যুদ্ধের পর বাংলাদেশের উত্তর সীমান্তে নীলফামারী চিলাহাটি এবং ভারতের হলদিবাড়ি হয়ে দার্জিলিং পর্যন্ত রেলপথ বন্ধ হয়ে যায়। তবে নতুন করে আবারো এ রেলপথ চালু হওয়ার বিষয়টি ইতিবাচক। ওই দিন থেকে শুধু মালবাহী ট্রেন চলাচল করবে।”

No comments

-->