নতুন প্রকাশিতঃ

মহাদেবপুরে আগাম আলু চাষঃ

 মহাদেবপুরে আগাম আলু চাষঃ

মোঃরফিকুল ইসলাম,মহাদেবপুর প্রতিনিধি ঃনওগাঁর মহদেবপুরে ব্যাপক জমিতে আগাম জাতের ষাটাল আলু চাষ করেছেন কৃষকরা। মাঠে মাঠে এখন চলছে আলু খেত পরিচর্যার কাজ। স্থানীয় কৃষি বিভাগের সহযোগিতায় চলতি মৌসুমে এ উপজেলায় রেকর্ড পরিমাণ জমিতে আলু চাষ হয়েছে। আলু চাষে গত বছর ভালো দাম পাওয়ায় নতুন উদ্যোমে কৃষকরা এবার মাঠে নেমেছেন। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে এবার ১৩০ হেক্টর বেশি জমিতে আলু চাষ হয়েছে। গত কয়েক দিনের শীত ও কুয়াশায় আলু খেতের ক্ষতির আশংকা দেখা দিলেও কৃষি বিভাগের সঠিক পরামর্শ ও কৃষকদের সঠিক পরির্চযায় আলু খেতের তেমন ক্ষতি হবে না বলে জানান স্থানীয় কৃষকরা। মহাদেবপুর সদর ইউনিয়নের বালুকাপাড়া গ্রামের আলুচাষী অমিয়কুমার মন্ডল জানান, তিনি দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে আলু চাষ করছেন। এবারও তিনি ১১ বিঘা জমিতে আলু চাষ করেছেন। এর মধ্যে ৫ বিঘা জমিতে আগাম জাতের ষাটাল আলু চাষ করেছেন। এসব আলু আগামী ২০ থেকে ২২ দিনের মধ্যেই বিক্রয়ের উদ্দেশে বাজারে তুলবেন। বাকি ৬ বিঘা জমিতে আমন ধান কাটার পর কার্ডিনাল ও ষাটাল জাতের আলু রোপন করেছেন। অন্যান্য বছরের তুলনায় এবার আলুর রোগ বালাই কম হওয়ায় আলুর খেত ভাল হয়েছে। আলুর খেত ভাল হওয়ায় বাম্পার ফলনের আশা করছেন তিনি। আগাম জাতের ষাটাল আলু প্রতিবিঘায় ৩৫ থেকে ৪০ মণ হারে পাঁচ বিঘা জমিতে মোট ১৭৫ থেকে ২০০ মণ আলু উৎপাদনের আশা ব্যক্ত করেছেন। বাজার মূল্য ভালো পেলে ১ থেকে দেড় লক্ষ টাকা লাভ হবে বলে তিনি আশা করেন। শুধু তিনিই নন, তার মত অনেক আলু চাষিই এবার আলুর বাম্পার ফলন আশা করছেন। তবে দাম নিয়ে শঙ্কিত রয়েছেন অনেক কৃষক।এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি অফিসার অরুণচন্দ্র রায় জানান, আলুচাষে কৃষকদের সব ধরনের সহযোগিতা ও পরামর্শ দেয়ার জন্য উপজেলা কৃষি অফিসের মাঠপর্যয়ের অফিসারগণ কৃষকদের নিয়ে উঠোন বৈঠক ও রোগ বালাই সম্পর্কে সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ করছেন। শেষ পর্যন্ত আবহাওয়া অনুকুলে থাকলে এবার এ উপজেলায় আলুর বাম্পার ফলন হবে বলেও তিনি আশা প্রকাশ করেন।

No comments

-->