শিরোনামঃ

পিঠার মৌসুম শীতকাল

 পিঠার মৌসুম শীতকাল

উৎপল কুমার বগুড়া জেলা প্রতিনিধিঃ পিঠাবিহীন শীতকাল যেন কল্পনাই করা যায় না। তাই শীতকালকে পিঠার মৌসুমও বলা হয়ে থাকে। অপরদিকে বাঙালির লোকইতিহাস-ঐতিহ্যে পিঠাপুলি একটি অবিচ্ছেদ্য অংশ। এই পিঠাপুলির প্রায় ১৫০টি রকমভেদ থাকলেও আমাদের বাংলাদেশে বর্তমানে মোটামুটি ৩০ প্রকারের পিঠার প্রচলন বেশি দেখা যায়।

শীতের ঝাপসা মতন কুয়াশা চাদর ভোরে জোগাড় করা খেজুর রস, সেই নতুন রসের থেকে তৈরি পাটালি গুড় আর খাঁটি ঘন দুধ, তেল ইত্যাদি সব উপকরণের সাথে মায়ের যত্ন আর ভালোবাসা যোগ হলেই মনকাড়া, নজরকাড়া অমৃত স্বাদের পিঠা পুলি জিভে জল আনে।বেশিরভাগ পিঠা মিষ্টি হলেও সেই মিষ্টি স্বাদ একইরকম নয়। এদের কোনটা রেখে কোনটা বেশি মজাদার তা বলা কঠিন হয়ে পরে। মিষ্টি পিঠার প্রকার বেশি থাকলেও ঝাল পিঠারো কদর আছে। 

শুধু স্বাদই নয়, নামেও এদের বিশেষত্ব রয়েছে। যেমন- গরম ভাপে তৈরি ভাপা পিঠা, সুন্দর নকশা আঁকা হয় বলে নকশী পিঠা, দুধে ভিজে চিতই হয় দুধ চিতই, লবঙ্গের ঘ্রানে সাজে লবঙ্গ লতিকা, মুঠ পাকিয়ে সেদ্ধ দিলেই মুঠোপিঠা।

এছাড়াও মুখ রোচক পাটিসাপটা, কুলি, দুধ কুলি, চিতই, তেলেভাঁজা, রাজভোগ, ঝিনুক পিঠা, ঝুড়ি পিঠা, মাংস পিঠা, চাপড়ি পিঠা, ছিট পিঠা, কলা পিঠা, পাকন, আন্দশা, মালপোয়া, সেমাই পিঠা,মেরা পিঠাসহ ইত্যাদি ।পিঠা-পুলির দেশ বাংলাদেশ। তাই বিভিন্ন অনুষ্ঠানে পিঠার স্থান যেন দেশীয় ঐতিহ্যের স্বকীয়তা ধরে রাখে। আত্মীয়-স্বজনদের বাড়ি পিঠা পাঠানোর রীতি নিয়ম তাই পালন হয়ে আসছে বহুকাল ধরে।

আজকের ব্যস্ত জীবনে অনেকেরই শহরের ইট-কাঠের খাঁচায় আর সেই গ্রামের  মেঠোপথ ধরে ঝাপসা কুয়াশায় পাওয়া যায় না সকালের খেজুরের রস। সূর্যের কোমল মিষ্টি রোদের হাসিতে হয় না খাওয়া রসের পিঠা।

তবে নাড়ির টান যে আজও অনুভূত হয় সংস্কৃতির তরে। তাই শহরবাসীর পিঠার চাহিদা মেটাতে অলিতে গলিতে, রাস্তার মোড়ে, বাসস্ট্যান্ড ও বাজারে বসেছে ছোট ছোট পিঠার দোকান।এছাড়াও প্রতি বছরই শীতের মৌসুমে ঢাকাসহ প্রায় সব জেলা শহরগুলোতেও বিভিন্ন পিঠা উৎসবে মুখরিত হয় অনেকেই। কখোনো কখোনো আবার পিঠার মেলা দেখা যায়।

পিঠার দোকানে প্রভাবিত হয়ে ক্রমেই আমাদের নিজ বাড়িতে পিঠা তৈরির ঐতিহ্য হারিয়ে যাচ্ছে। পিঠা আমাদেরই ঐতিহ্য, আমাদেরই সংস্কৃতি। এই ঐতিহ্য বাঁচিয়ে রাখার চেষ্টা তাই আমাদেরই করতে হবে। কি ভাবছেন? কুটুম বাড়ি পিঠা পাঠাতে হবে যে! তড়িঘড়ি কাজে লেগে পড়ুন!

No comments

-->