শিরোনামঃ

সুন্দরগঞ্জে বড় ভাইয়ের সঙ্গে প্রতারণা

 সুন্দরগঞ্জে বড় ভাইয়ের সঙ্গে প্রতারণা



 গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি:  গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার ছাপড়হাটি ইউনিয়নের উত্তর মরুয়াদহ গ্রামের আঃ হাই’র পুত্র জোহা মিয়া জমি বিক্রির জন্য বড় ভাই মোজাম্মেল হকের কাছ থেকে টাকা নিয়ে প্রতারণা অতঃপর বাস্তবাড়ি থেকে উচ্ছেদের পায়তারা চালাচ্ছেন বলে অভিযোগ রয়েছে। 

    বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, বিগত ২০ বছর থেকে ছাপড়হাটি ইউনিয়ন ভ‚মি অফিস সংলগ্ন ২ ভাইয়ের নামে কবলা খরিদকৃত ৪ শতক জমিতে মোজাম্মেল হক বসতবাড়ি নির্মাণ করে বসবাস করছেন।


ছোট ভাই জোহা মিয়া পৈত্রিক বসতবাড়িতে বসবাস করায় তার খরিদকৃত ঐ ২ শতক জমি বিক্রির জন্য মূল্য বাবদ স্থানীয়দের মোকাবেলায় বড় ভাই মোজাম্মেল হকের কাছ থেকে ১ লাখ টাকা নেন। এরপর দলিল করে না দিয়ে দিনের পর দিন টালবাহনা করে কালক্ষেপণ করেন। একপর্যায়ে ঐ বসতবাড়ি থেকে মোজাম্মেল হককে উচ্ছেদ করে দিয়ে জোহা মিয়া তার ২ শতক জমি দখলে নেয়ার অপচেষ্টা চালায়। এছাড়া, সম্প্রতি সহকারী কমিশনার (ভ‚মি) বরাবরে অভিযোগ দায়ের করেন। এর প্রেক্ষিতে ইউনিয়ন ভ‚মি উপ-সহকারী কর্মকর্তা আব্দুল আউয়াল দায়িত্বপ্রাপ্ত হয়ে বিভিন্নভাবে তদন্ত পূর্বক প্রতিবেদন দাখিল করেন। দতন্তকারী কর্মকর্তা তদন্ত প্রতিবেদনে সঠিক বর্ণনা উল্লেখ করায় জোহা মিয়া নানাভাবে আরও হয়রাণীর প্রশ্রয় নিচ্ছেন বলে মোজাম্মেল হকের অভিযোগ। তিনি বলেন, তার ছোট ভাই জোহা মিয়াসহ কবলা খরিদকৃত ৪ শতক জমির মধ্যে তার নিজ অংশের ২ শতক ও ছোট ভাই জোহা মিয়ার ২ শতক জমিতে ঘরবাড়ি নির্মাণ করে বসবাস করছেন। পৈত্রিক বসতবাড়িতে জোহা মিয়া বসবাস করায় এখানকার তার নামের ২ শতক জমি বিক্রির জন্য মূল্য বাবদ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের মোকাবেলায় ১ লাখ টাকা গ্রহণ করে দলিল করে দেয়ার নামে দীর্ঘদিন ধরে টালবাহনা করছে। সে টাকা নিয়েও জমি ২ শতক দলিল করে না দিয়ে তার বসতবাড়ি জবর-দখল করে নেয়ার পায়তারা চালাচ্ছে। এরই এক পর্যায়ে অন্যের প্ররোচণায় সহকারী কমিশনা (ভ‚মি) বরাবরে মিথ্যা অভিযোগ করে হয়রাণী করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে। এ নিয়ে জোহা মিয়ার সঙ্গে মোবাইল ফোনে কথা হলে তিনি বলেন- ‘ভাই আমি আপনার সঙ্গে দেখা করব। আপনি কোথায় আছেন, বলেন। সন্ধ্যায় আমি বাজারে আপনার সঙ্গে দেখা করব’। তবে, সংশ্লিষ্ট বিষয়ে প্রশ্নের কোন সদুত্তর দেননি। 

    এ ব্যাপারে অভিযোগের তদন্তকারী কর্তকর্তা ও ছাপড়হাটি ইউনিয়ন ভ‚মি উপ-সহকারী কর্মকর্তা আব্দুল আউয়াল জানান, জোহা মিয়া অভিযোগের প্রেক্ষিতে বিভিন্নভাবে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিল করেছি। এতে কোন স্বজনপ্রীতি, স্বেচ্ছাচারিতা, প্রভাবিত ও অন্যকোনভাবে মিথ্যার সুযোগ নেয়া হয়নি।

No comments

-->