নতুন প্রকাশিতঃ

সেতুমন্ত্রী'র ব্যক্তিগত সহকারী পরিচয়ে প্রতারণা করার দায়ে গ্রেফতার।

 সেতুমন্ত্রী'র ব্যক্তিগত সহকারী পরিচয়ে প্রতারণা করার দায়ে গ্রেফতার।

নিউজ ডেক্সঃ সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এর ব্যক্তিগত সহকারী (এপিএস) পরিচয় দিয়ে মন্ত্রীর সিল ও স্বাক্ষর জাল করে বিভিন্ন সরকারি দফতরে চাকরি দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে প্রতারণা করে আসছিল এক ব্যাক্তি। এসব মিথ্যা বলে মানুষের কাছ থেকে সে লক্ষ লক্ষ টাকাও হাতিয়ে নিয়েছে। এ ঘটনায় মো. মোজাম্মেল হক ইয়াসিন (৩৩) নামে এক প্রতারককে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা লালবাগ বিভাগ।রোববার (২৭ ডিসেম্বর) ডিএমপির মিডিয়া উইং থেকে এ তথ্য জানানো হয়।গ্রেফতারের সময় তার কাছ থেকে প্রতারণা কাজে ব্যবহৃত ওবায়দুল কাদের এর নাম সম্বলিত সিল ও বিভিন্ন নিয়োগ সংক্রান্ত কাগজপত্র উদ্ধার করা হয়।

গোয়েন্দা লালবাগ বিভাগের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার মো. সাইফুর রহমান আজাদ জানান, গ্রেফতারকৃত মোজাম্মেল ভিজিটিং কার্ড ছাপিয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এর ব্যক্তিগত সহকারী পরিচয় দিত। মন্ত্রীর নামে জাল সিল ব্যবহার করে তার স্বাক্ষর জাল করে এলজিইডি ভবন, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর, পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়, ফায়ার সার্ভিস, বিভিন্ন ব্যাংকে নিয়োগ, টেন্ডারবাজি ও বদলি সংক্রান্তে সুপারিশ করতো। এমনভাবে প্রতারণা করে ভুক্তভোগীদের নিকট হতে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিত।

তিনি আরো জানান, ভুক্তভোগী মো. মাঈন উদ্দিন নামে এক ব্যক্তিকে অস্থায়ী কার্য সহকারী পদে চাকরি দেওয়ার জন্য মন্ত্রীর সিল ও স্বাক্ষর জাল করে প্রধান প্রকৌশলী, এলজিইডি ভবন, আগারগাঁও, ঢাকা বরাবর একটা আবেদন করে। বিষয়টি এলজিইডি অফিস কর্তৃপক্ষের সন্দেহ হলে এলজিইডি অফিস কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে শেরেবাংলা নগর থানায় একটি মামলা করে। মামালার প্রেক্ষিতে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

সাইফুর রহমান আজাদ আরো জানান, ২৩ ডিসেম্বর কামরাঙ্গীরচর থানার জাউলাহাটি চৌরাস্তা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করে কোতোয়ালী জোনাল টিম। এরপর ২৪ তারিখে গ্রেফতারকৃতকে রিমান্ডের আবেদন করে আদালতে পাঠালে আদালত দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে। রিমান্ড শেষে আজ তাকে আবারো আদালতে পাঠানো হয়।

No comments

-->