শিরোনামঃ

জলঢাকায় মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী বাবলু

 জলঢাকায় মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী বাবলু

জলঢাকা প্রতিনিধিঃ আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে নীলফামারীর জলঢাকা পৌরসভাকে আধুনিক  ও  ডিজিটাল পৌরসভা গড়ার প্রত্যয়ে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী  ইলিয়াস হোসেন বাবলু। তিনি  জলঢাকা উপজেলা  কৃষক লীগের সহ সভাপতি ও বনিক সমিতির  সভাপতি , পরিবহন মালিক সমিতি নীলফামারী জেলা শাখার সহ সভাপতি ও ব্যাবসায়ী ।

গত কিছুদিন আগে জলঢাকা পৌর আওয়ামীগের বর্ধিত সভায় পৌর আওয়ামীলীগের একক মেয়র প্রার্থী হিসাবে ইলিয়াছ হোসেন  বাবলুর নাম জেলা নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে তাদের কাছে প্রষ্তাব করলে সকলে একবাক্যে সমর্থন করেন।পাশা পাশি আরো দুই জনের নাম প্রস্তাব করেন নীলফামারী জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি  ও সাধারণ সম্পাদকের কাছে তারা হলেন আওয়ামী লীগ নেতা ও সাবেক জলঢাকা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ার ম্যান মহসিন আলী, আওয়ামীলীগ নেতা জিতেন্দ্র নাথ রায়।

বাবলু পৌর সভার উপনির্বাচনে মেয়র নির্বাচিত হয়ে সারে চার বছর দায়িত্ব পালন করার মাধ্যমে পৌর সভাকে ২য় শ্রেনীতে উন্নিত করার মাধ্যমে অনেক উন্নয়ন করেন। তাছাড়া তার পিতা জলঢাকা আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মরহুম মোশারফ হোসেন,, তার ভাই মুক্তিযুদ্ধার সংসদের পৌর শাখার সভাপতি মিন্টু,আরএক ভাই উপজেলা যুব লীগের সাবেক আহবায়ক ছিলেন মরহুম সাজু।

বর্তমানে তিনি পৌর এলাকায় চলে বেড়াচ্ছেন ও ভোট প্রার্থনা করে দোয়া সমর্থন  চাচ্ছেন উঠোন বৈঠকের মাধ্যমে। তার উঠোন বৈঠোকে অংশ নেয়া নেতা  কর্মী-সমর্থকর ও জনগন, দলীয নেতা কর্মীরা আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে  উপজেলা কৃষক লীগের সহ সভাপতি ইলিয়াছ হোসেন  বাবলুকে  দলীয় মনোনীত প্রার্থী ও নৌকার মাঝি হিসেবে মেয়র পদে দেখতে চান।এদিকে পৌর নির্বাচন করে সামনে রেখে পৌর আওয়ামীলীগ কার্যালয় এখন দিন রাত দলীয় নেতা কর্মীদের পদচারনায় মুখরিত।

 এ বিষয়ে পৌর আয়ামীলীগের সহ সভাপতি মতিয়ার রহমান বলেন আসন্ন পৌর নির্বাচনে ইলিয়াছ হোসেন  বাবলুর কোন বিকল্প নাই,তাকে মনোনয়ন দিলে তিনি নির্বাচিত হবেন। পৌর ৮ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের  সভাপতি আব্দুর রহমান জানান পৌর নির্বাচনে বাবলুই যোগ্য প্রার্থী ,তাই আমরা তাকে সমর্থন দিয়েছি। তাকে দলীয মনোনয়ন দিলে বিপুল ভোটে নির্বাচিত হবেন।

 ২ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের  সভাপতি সোনা মিয়া বলেন বাবলু আওয়ামী পরিবারের সন্তান,ও সাবেক পৌর মেয়র  তাকে নৌকা দিলে আমরা বাবলু কে মেয়র নির্বাচিত করে নেত্রীকে উপহার দিব।

৯ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সাধারন সম্পাদক  গফুর জানান পৌর নির্বাচনে মেয়র পদে যে তিন জনের নাম বর্ধিত সভায়  প্রস্তাব করা হয়েছে তাদের মধ্যে  ইলিয়াছ হোসেন বাবলু সাবেক মেয়র, এবং কৃষক লীগ নেতা, ব্যাবসায়ী, সৎ ব্যাক্তি ও  যোগ্য প্রার্থী , আমরা তাকে সমর্থন দিয়েছি এবং দলীয় মনোনয়ন  তিনিই পাওয়ার দাবী রাখেন। তিনি মনোনয়ন পেলে আমরা কাজ করব নির্বাচনে  মেয়র পদে বিজয়ী করার জন্য্য। তা ছাড়া তার জনসমর্থন  ও মানুষের  ভালোবাসা রয়েছে প্রচুর।

বাকী প্রার্থীদের মধ্যে মহসিন আলী  উপজেলা  আওয়ামী লীগের সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য ও শিক্ষক ,আর জিতেন্দ্র নাথ রায় দলের কোন পদ আছে আমি  জানি না ও তাকে আমরা চিনি না। পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগ  সাধারন সম্পাদক মমিনুর রহমান বলেন পৌর নির্বাচনে  ইলিয়াছ হোসেন  বাবলুর কোন বিকল্প নাই আওযামীলীগে। তার বিপুল জনপ্রিয়তা রয়েছে। তাকে নৌকা প্রতিক দিয়ে নৌকার মাঝি বানানোর দাবী জানান।

পৌর ছাত্রলীগ সাধারন সম্পাদক রাজন জানান সাবেক পৌর মেয়র বাবলুকে নৌকার মাঝি বানালে আমারা তাকে নির্বাচিত করতে আমরা ঐক্যবদ্ধ্য ভাবে কাজ করবো।

 পৌর আওয়ামী লীগের  সাধারন সম্পাদক আব্দুল মজিদ জানান পৌর নির্বাচনে সাবেক পৌর মেয়র  বাবলুকে  যোগ্য প্রার্থী হিসাবে বেছে নিয়ে মেয়র পদে দলীয  মনোনয়নের জন্য্য পৌর আওয়ামীগ নেতৃবৃন্দ তার নাম বর্ধিত  সভায় জেলা নেতাদের কাছে প্রস্তাব ও সমর্থন করেন। তাকে দলীয মনোনয়ন দিলে নির্বাচিত হবেন। আশাকরি বাবলুক  দলীয়  মনোনয়ন দিবেন  নেত্রী।

আসন্ন পৌর নির্বাচন কে ঘিরে পৌর এলাকা সহ পুরো উপজেলায়  শুরু হয়েছে নানান জল্পনা কল্পনার করে হচ্ছেন নৌকার মাঝি। এখন দেখার বিষয় সকল জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে করে হবেন নৌকার মাঝি সেটা দেখার আগ্রহে রয়েছেন সাধারন মানুষ।

No comments

-->