শিরোনামঃ

ঠাকুরগাঁওয়ের মৃত ব্যাক্তির লাশ দাফনের পর পরই খুনিদের ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন।

 ঠাকুরগাঁওয়ের মৃত ব্যাক্তির লাশ দাফনের পর পরই খুনিদের ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন।

মোঃসোহেল রানা,ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধিঃ ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার রহিমানপুর ইউনিয়নের হরিহরপুর গ্রামে জমি নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনায় নিহত হওয়া তোয়াবুর রহমানের খুনীদের ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন করেছে নিহতের পরিবার, স্বজন ও এলাকাবাসী।সোমবার বিকালে ময়না তদন্ত শেষে নিহতের লাশ দাফন হওয়ার ২০ মিনিট পর নিহতের বাড়ির সামনে এ মানববন্ধনটি অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, নিহতের স্ত্রী খায়রুমা বেগম, ছেলে সাব্বির হোসেন সান, নিহতের ভাই ইউসুফ আলী, ভাতিজা আবির হোসেন, ভাগিনা হাসান আলী সহ স্থানীয় গণ্যমান্যরা।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, জমি সংক্রান্ত বিষয়কে ফাঁদ হিসেবে ব্যবহার করে তোয়াবুর রহমানকে পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করা হয়েছে। কারন তাকে হত্যার হুমকি অনেক আগে থেকে দিয়ে আসছিলো খুনীরা। এমন নৃশংস ঘটনার দ্রুত দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি আমরা। আমরা লক্ষ্য করছি প্রশাসনের তৎপরতা ইতিবাচক। তারা ইতিমধ্যে চারজন আসামী কে গ্রেপ্তার করেছে। কিন্তু হত্যার মূল হোতা মো: শহীদ হোসেন, মো: আবুল কালাম আজাদ, মো: মাহাবুব হোসেন ও মো: আলতাফুর রহমান এখনও গ্রেপ্তার হয়নি। আমরা আশা রাখি প্রশাসন তাদের খুব শিঘ্রই গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় নিয়ে আসবেন। এ সময় অশ্রুসিক্ত চোখে তোয়াবুর রহমান হত্যার দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দাবি করেন মানববন্ধনকারীরা।

উল্লেখ্য যে, গত রবিবার সদর উপজেলার রহিমানপুর ইউনিয়নের হরিহরপুর গ্রামে জমি নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনায় তোয়াবুর রহমান (৫৮) নামের একজন নিহত হয়। এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী মোছা: খায়রুমা বেগম বাদী হয়ে ঠাকুরগাঁও সদর থানায় ৮ জনের নাম উল্লেখ করে একটি মামলা দায়ের করেন।

ঠাকুরগাঁও সদর থানার অফিসার ইনচার্জ তানভিরুল ইসলাম জানান, জমি নিয়ে সংঘর্ষে নিহতের ঘটনায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে এবং চার জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, মো: শহীদ হোসেনের স্ত্রী, মোছা: মোছা: গলেনুর বেগম, মো: মাহাবুব হোসেনের স্ত্রী মোছা: আইরিন আক্তার, মো: আলতাফুর রহমানের স্ত্রী মোছা: মোছা: ইয়াসমিন, মো: আবুল কালাম আজাদের স্ত্রী মোছা: উম্মে হানি। এছাড়াও বাকী আসামীদের ধরতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

No comments

-->