শিরোনামঃ

মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ বিশ্বের উন্নত সমৃদ্ধ দেশে পরিণত হবে- মজনু

 মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ বিশ্বের উন্নত সমৃদ্ধ দেশে পরিণত হবে- মজনু

উৎপল কুমার নিজস্ব প্রতিবেদক প্রতিনিধিঃ বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যগে পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে বগুড়া শহরের সাতমাথায় দলীয় কার্যালয়ে সকাল ৮টায় বিজয় দিবসের আলোচনা সভায় বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব মজিবর রহমান মজনু বলেন মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ বিশ্বের মধ্য উন্নত সমৃদ্ধ দেশে পরিণত হবে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে   ৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর লাখো শহীদের রক্তে বিজয় অর্জিত হয়েছে। আজ বিজয়ের ৫০ তম বছরে পদার্পণ করে জাতির পিতার কন্যা দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নের পথে এগিয়ে যাচ্ছে। ভিক্ষুকের জাতি থেকে আজ আমরা উন্নয়নশীল দেশে পরিণত হয়েছি। আমরা স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশের কাতারে সামিল হওয়ার যোগ্যতা লাভ করেছি। জাতির পিতার স্বপ্ন ছিল ক্ষুধা দারিদ্র মুক্ত অসাম্প্রদায়িক সোনার বাংলাদেশ গড়ার। জননেত্রী শেখ হাসিনা সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নের অগ্রদূত।  উন্নয়নের এই ধারাবাহিকতা নস্যাৎ করার জন্য আজ দেশে ইসলামের নাম ব্যবহার করে সাম্প্রদায়িক জঙ্গি সংগঠন গুলো তৎপর হয়ে উঠেছে। সকলকে বিজয় দিবসের প্রাক্কালে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে সকল প্রকার ষড়যন্ত্রের মোকাবেলা করতে হবে। 

তিনি আরও বলেন, লাখো শহীদের রক্তে অর্জিত স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা কোন অপশক্তি যাতে  ধ্বংস করতে না পারে সেই জন্য নেতাকর্মীদের সজাগ থাকার আহ্বান জানান।

আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী সাধারণ সম্পাদক রাগেবুল আহসান রিপু, জেলা আওয়ামীলীগ নেতা ডাঃ মকবুল হোসেন, টি জামান নিকেতা, আব্দুল মতিন, এ্যাড মকবুল হোসেন মুকুল, এ্যাড রেজাউল করিম মন্টু, প্রদীপ কুমার রায়, মঞ্জুরুল আলম মোহন, আসাদুর রহমান দুলু, সাগর কুমার রায়, জাকির হোসেন নবাব, শাহাদাৎ আলম ঝুনু। জেলা আওয়ামীলীগের প্রচার প্রচার সম্পাদক সুলতান মাহমুদ খান রনির পরিচালনায় এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন  তবিবর রহমান তবি, শেরিন আনোয়ার জর্জিস, এ্যাড শফিকুল ইসলাম আক্কাস, আল রাজী জুয়েল, নাসরিন আক্তার সীমা, মাশরাফি হিরো, আনোয়ার পারভেজ রুবন, তপন চক্রবর্তী,  রুহুল মোমিন তারিক, এসএম শাজাহান, খালেকুজ্জামান রাজা, মাহফুজুল ইসলাম রুমেন, আবু সেলিম, এমএ বাসেত, এ্যাড গোলাম ফারুক, সামসুল আলম জয়, ইমরান হোসেন রিবন, রফিনেওয়াজ খান রবিন, আবু সুফিয়ান সফিক,  আতিকুর রহমান দুলু, এ্যাড নরেশ মুখার্জি, শহিদুল ইসলাম দুলু, রাহুল গাজী, অধ্যক্ষ আহসানুল হক, তৌহিদুল করিম কল্লোল, প্রভাষক আব্দুর রাজ্জাক,  সাইফুল ইসলাম বুলবুল, খাদিজা খাতুন শেফালী, সুরাইয়া নিগার ডরোথি, মাফুজুল ইসলাম রাজ,  আবু ওবায়দুল হাসান ববি, রুমানা আজিজ রিংকি, প্রভাষক সোহরাব হোসেন সান্নু, কামরুল হুদা উজ্জল, গৌতম কুমার দাস, আব্দুস সালাম, আলমগীর বাদশা, শুভাশিষ পোদ্দার লিটন, সাজেদুর রহমান সাহীন, আমিনুল ইসলাম ডাবলু, জুলফিকার রহমান শান্ত, মঞ্জুরুল ইসলাম মঞ্জু, লাইজিন আরা লিনা, ডালিয়া নাসরিন রিক্তা, নাইমুর রাজ্জাক তিতাস,  অসীম কুমার রায়, রাশেদুজ্জামান রাজন, রাসেল আহমেদ কনক প্রমুখ। এদিন সকাল ৮টায় দলীয় কার্যালয়ে পতাকা উত্তোলন, শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ, বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতার প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করে ১ মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

No comments

-->