নতুন প্রকাশিতঃ

নাটোরে বাগাতিপাড়ায় চল্লিশ দিনের কর্মসূচি প্রকল্পের শ্রমিকরা চেকের মাধ্যমে টাকা পাবেন

 নাটোরে বাগাতিপাড়ায় চল্লিশ  দিনের কর্মসূচি প্রকল্পের শ্রমিকরা চেকের মাধ্যমে টাকা পাবেন!



মোঃ কামাল মাহমুদ 

বাগাতিপাড়া,(নাটোর))


প্রতিনিধিঃ নাটোরে বাগাতিপাড়ায় "চল্লিশ  দিনের কর্মসূচি" প্রকল্পের শ্রমিকরা নিজস্ব ব্যাংক হিসাব থেকে চেকের মাধ্যমে টাকা  উত্তোলন করবেন। ব্যাংক উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির অনুমোদিত চেকের টাকা কালেকশনের মাধ্যমে শ্রমিকের মজুরি পরিশোধ করবেন। শ্রমিকদের টাকা উত্তোলনে ইউপি চেয়ারম্যান ও সদস্যের কোন দায়িত্ব নেই।


বাগাতিপাড়া উপজেলার জামনগর ইউনিয়নে ৭ নভেম্বর চল্লিশ দিনের কর্মসূচি  প্রকল্পের কাজ শুরু হয়েছে। এ ইউনিয়নে ৯টি ওয়ার্ডে ২শত ৩জন নারী-পুরুষ শ্রমিক নিয়োগ পেয়েছেন। প্রত্যেক শ্রমিক প্রতি কর্ম দিবসে ২শত টাকা মজুরি পাবেন। এখানে

৯টি ওয়ার্ডে  শ্রমিকরা ৫টি দলে বিভক্ত হয়ে কাঁচা রাস্তা সংস্কার করছেন। ৫ জন ইউপি সদস্য ৫টি দলের প্রকল্প সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।  


উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির সিদ্ধান্তে ট্যাগ অফিসার, ইউপি সদস্য ও লেবার সরদার এ কর্মসূচির কাজ দেখ-ভাল করছেন।


বাগাতিপাড়া উপজেলা দারিদ্র বিমোচন কর্মকর্তা জাকির হোসেন জানান,তিনি ট্যাগ অফিসার হিসেবে নিয়মিত শ্রমিকদের উপস্থিতি ও কাজ  পরিদর্শন করেন। তাঁর এবং পি আই ও'র স্বাক্ষরকৃত জব কার্ডের উপস্থিতির ভিত্তিতে শ্রমিকরা নিজস্ব ব্যাংক হিসাব থেকে প্রাপ্য টাকা উত্তোলন করতে পারবেন। 


চেয়ারম্যান আব্দুল কুদ্দুস জানান,উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির সিদ্ধান্ত মোতাবেক  প্রকল্পের কার্যক্রম চলে। স্বচ্ছতার ভিত্তিতে শ্রমিকরা নিজস্ব ব্যাংক  হিসাব থেকে তাঁদের প্রাপ্য মজুরি  উত্তোলন করবেন। শ্রমিকদের টাকা উত্তোলনে তাঁর কোন দায়িত্ব নেই। 


"রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের জামনগর শাখার ব্যবস্থাপক তৈয়ব আলী জানান, মঙ্গলবার (১৭নভেম্বর) উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির অনুমোদিত ১৬লাখ ৩৪ হাজার টাকার চেক  ব্যাংকে জমা পড়েছে। অনুমোদিত টাকা জামনগর ইউনিয়নে ৪০দিনের কর্মসূচি প্রকল্পের ২শত ৩জন শ্রমিকের জন্য বরাদ্দ হয়েছে।  চেকের টাকা কালেকশনের মাধ্যমে

পর্যায়ক্রমে শ্রমিকদের মজুরি দেওয়া হবে। 

প্রত্যেক শ্রমিক জব কার্ডের উপস্থিতির ভিত্তিতে চেকের মাধ্যমে ৭ থেকে ১০দিন অন্তর নিজস্ব হিসাব থেকে প্রাপ্য টাকা উত্তোলন করতেপারবেন।  সরকারি নির্দেশনায় তাঁরা প্রাপ্য মজুরির শতকরা  সাড়ে ৮৭ টাকা উত্তোলন করবেন। অবশিষ্ট সাড়ে ১২ পারসেন্ট টাকা  জুলাই মাসে উত্তোলন করবেন। "শ্রমিকদের টাকা উত্তোলনে চেয়ারম্যানের কোন দায়িত্ব নেই।"

No comments

-->