নতুন প্রকাশিতঃ

সাদুল্লাপুরে যৌতুকের দায়ে গৃহবধূকে হত্যার চেষ্টা

 সাদুল্লাপুরে যৌতুকের দায়ে গৃহবধূকে হত্যার চেষ্টা



জিহাদ ইসলাম,গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি:

সাদুল্লাপুর উপজেলায় যৌতুকের দায়ে রনি বেগম (২৫) নামের এক গৃহবধূকে শ্বারুদ্ধে হত্যার চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। আহত রনি বেগম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

সকালে উপজেলার ধাপেরহাট ইউনিয়নের ইসলামপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। গৃহবধূ রনি বেগম ওই গ্রামের সোহেল রানার স্ত্রী।

জানা যায়, সাদুল্লাপুর উপজেলার ফরিদপুর ইউনিয়নের তাহেরপুর গ্রামের আব্দুর রউফ মিয়ার মেয়ে রনি বেগমের সঙ্গে ইসলামপুর গ্রামের হায়দার আলীর ছেলে সোহেল রানার বিয়ে হয়। প্রায় দুই বছর আগে এ বিয়ের সময় আব্দুর রউফ মিয়া তার মেয়ে রনির সুখের সংসারের জন্য ২ লাখ টাকা, স্বর্ণালংকার ও আসবাপত্রাদি সোহেল রানাকে দেয়। এরপর কিছুদিন তাদের দাম্পত্য জীবন ভালোই চলছিলো।

সম্প্রতি রনির কাছে মোটা অংকের যৌতুকের দাবি করে স্বামী ও শ্বশুর।এ দাবি মেটাতে না পারলে রনি বেগমকে প্রায়ই মানসিক নির্যাতন করা হয়। ধারাবাহীকতায় শনিবার সকালে স্বামী সোহেল রানাসহ বাড়ির লোকজন পরিকল্পিতভাবে রনিকে বেধরক মারপিট ও শ্বাসরুদ্ধে হত্যার চেষ্টা করে। এসময় পিত্রালয়ের লোকজন খবর পেয়ে রনিকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে সাদুল্লাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান।

এসব ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে রনি বেগমের পিতা আব্দুর রউফ মিয়া বলেন, যৌতুকের দাবিতে দীর্ঘদিন ধরে রনিকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করে আসছে সোহেল রানা ও তার বাড়ির লোকজন। শনিবার সকালে রনিকে শ্বাসরুদ্ধে হত্যার চেষ্টার ঘটনায় সাদুল্লাপুর থানায় মামলা দায়ের প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে।

এ বিষয়ে সোহেল রানার সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তার কোন মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

সাদুল্লাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাসুদ রানা বলেন, এ ঘটনা কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি। পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া যেতে পারে।

No comments

-->