নতুন প্রকাশিতঃ

রাজশাহীতে পুলিশকে সহযোগিতা করাই রুবেল কে মারধর করলো মাদক ব্যাবসায়ীরা

 রাজশাহীতে পুলিশকে সহযোগিতা করাই রুবেল কে  মারধর করলো মাদক ব্যাবসায়ীরা


মাজহারুল ইসলাম চপল, রাজশাহীঃ রাজশাহীতে পুলিশকে সহযোগিতা করাই রুবেল নামের এক ব্যক্তিকে মারধর করে একই এলাকার চিহ্নিত মাদক ব্যাবসায়ীরা। 

সূত্রমতে জানাযায়, ৫ নভেম্বর বৃহস্পতিবার সকাল আনুমানিক ১১ টায় আসাম কলোনী বৌ বাজার এলাকায় পূর্ব পরিকল্পিতভাবে  মোঃ রুবেল হোসেন (৪০) কে মারধর করে একই এলাকার চিহ্নিত মাদক ব্যাবসায়ী  ইমান আলী ও তার সাংগো-পাংগোরা। খোঁজ নিয়ে জানাযায়,রাজশাহী নগরীর চন্দ্রীমা থানার আসাম কলোনী ও আশপাশের এলাকা অনেকদিন থেকেই  মাদকের  আখড়া হিসেবে গড়ে উঠেছে। দীর্ঘদিন ধরে পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অনেক সংস্থা এই মাদকের বিরুদ্ধে কাজ করে চলেছে। কিন্তু কোন ভাবে এই মাদককে নির্মূল করা যাচ্ছেনা। তবে রাজশাহীতে বর্তমান পুলিশ কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিক যোগদানের পর থেকে মাদক ব্যাবসায়ীরা যেন মুখ থুবড়ে পড়েছে। আর  মাদককে বন্ধ করার জন্য এই রুবেল অনেকদিন ধরে পুলিশকে বিভিন্নভাবে সাহায্য সহযোগিতা করে আসছে। এই সাহায্য করার জন্য চোরা কারবারি ও ব্ল্যাকার, বিলকিস তার স্বামী ইমান আলী(৫০) বিলকিসের ছেলে বেলাল (২২) ও ৮-১০ লোক পরিকল্পিত ভাবে রুবেলকে ঘিরে ধরে এবং গালিগালাজ করে। রুবেল গালিগালাজের প্রতিবাদ করলে লাঠিসোঠা ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি মারধর শুরু করে। এরপর রুবেল মাটিতে পড়ে গেলে স্থানীয় লোকজন রুবেলকে উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। রুবেল এখন রামেক হাসপাতালের ৫ নং ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। হাসপাতালে রুবেল এর স্ত্রী সিমা বেগম এর সাথে কথা বললে তিনি বলেন, আমার স্বামীর চিকিৎসা চলছে। অনেক পরিক্ষা নিরিক্ষা দিয়েছে। পরিক্ষার রিপোর্ট আসলে বোঝা যাবে কি হয়েছে। আর আজ আমার স্বামীকে যারা মারধর করেছে আমি তাদের উপযুক্ত  বিচার চাই। 

এ বিষয়ে চন্দ্রীমা থানার অফিসার ইনচার্জ সিরাজুম মনির সাথে কথা বললে তিনি জানান, রুবেল আমাদের বিভিন্নভাবে সাহায্য সহযোগিতা করে থাকে। রুবেলকে মারধর করেছে শুনেছি। এখন পর্যন্ত কোন লিখিত অভিযোগ পাইনি।  অভিযোগ পেলে অবশ্যই আইনানুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

No comments

-->