নতুন প্রকাশিতঃ

খুব অল্প সময়েই অর্থনীতি পুনর্গঠনে সাফল্য লাভ করেছিলেন বঙ্গবন্ধু

 খুব অল্প সময়েই অর্থনীতি পুনর্গঠনে সাফল্য লাভ করেছিলেন বঙ্গবন্ধু



বঙ্গবন্ধু শুন্য হাতে শুরু করে বাংলাদেশকে মর্যাদার স্থানে উন্নীত করেছিলেন


ফিরে আসা লাখ লাখ শরণার্থীর বন্দোবস্তের পাশাপাশি যুদ্ধবিধ্বস্ত বাংলাদেশ পুনঃগঠনে বঙ্গবন্ধু কী কী নীতি নিয়েছিলেন, কী কী চ্যালেঞ্জের মুখে তাকে পড়তে হয়েছিল- সেই সব বিষয় উঠে এলো অর্থ ও পরিকল্পনা উপকমিটি আয়োজিত ওয়েবিনারে।


রওনক জাহান বলেন, স্বাধীনতা উত্তর বাংলাদেশে ভঙ্গুর অবকাঠামো উন্নয়নের পাশাপাশি বঙ্গবন্ধুকে অর্থনীতি পুনরুদ্ধারের কাজেও হাত দিতে হয়েছিল। স্বাধীনতার আগে বড় বড় শিল্প-কারখানাগুলো সব ছিল পাকিস্তানিদের দখলে। তখন ফরেন রিজার্ভ বলতে কিছুই ছিল না। প্রশাসনে যেসব লোকজন ছিল তারা বয়সে তরুণ ছিল।


“বাংলাদেশই প্রথম একটা স্বাধীন দেশ যে পোস্ট কলোনিয়াল স্টেট সিস্টেমকে ভেঙে নতুন দেশ হয়েছে। সেই সময় এটা ছিল একটা ইউনিক ব্যাপার। এখন সভিয়েত ইউনিয়ন ভেঙে বিভিন্ন রাষ্ট্র হয়ে যাওয়ার পর স্বাধীন রাষ্ট্রের জন্মের বিষয়টি হয়ত স্বাভাবিক ঘটনা হয়েছে। তখন শুধু পশ্চিমা বিশ্ব নয়, তৃতীয় বিশ্বের দেশ, ইসলামি দেশগুলোও আমাদের পক্ষে ছিল না। কারণ তারা ভেবেছিল এতে করে নিজেদের দেশেও জাতীয়তাবাদী আন্দোলন দানা বাঁধতে পারে।”


গবেষক রওনক জাহানের কথায় উঠে এসেছে স্বাধীনতা উত্তরকালে বাংলাদেশের প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের বৈরী আচরণের কথা। গবেষক রওনক জাহানের কথায় উঠে এসেছে স্বাধীনতা উত্তরকালে বাংলাদেশের প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের বৈরী আচরণের কথা। যুক্তরাষ্ট্রের অনড় অবস্থান স্বাধীন বাংলাদেশে ১৯৭৪ সালের দুর্ভিক্ষের অন্যতম কারণ উল্লেখ করে তিনি বলেন, “আমেরিকা তখন ছিল বিশ্বের অনেক বড় খাদ্য সহায়তা দানকারী দেশ। ’৭২ সালের দিকে আমেরিকা যুদ্ধবিধ্বস্ত বাংলাদেশকে খাদ্য সহায়তা দিলেও বিপত্তিটা ঘটে ’৭৩ সালে এসে। তখন বাংলাদেশ খাদ্য কিনতে চাইলেও তারা দিতে চাচ্ছিল না। তারা কারণ হিসাবে দেখিয়েছে কিউবায় পাট বিক্রি করার বিষয়টি। সে কারণেই ১৯৭৪ সালে এই দেশে দুর্ভিক্ষটা হয়েছিল।”


বিশ্ব ব্যাংকের আশঙ্কাকে ভুল প্রমাণ করে দেশীয় কর্মীরাই স্বাধীনতার এক বছরের মাথায় প্রথম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা করে দিয়েছিলেন জানিয়ে অধ্যাপক রওনক বলেন, “দেশ যখন স্বাধীন হলো তখন দেশের নেতৃত্বে তরুণরাই ছিল। মাত্র সাড়ে তিন বছর তিনি ছিলেন। তিনি অনেকগুলো নীতি হাতে নিয়েছিলেন। তারপর যখন দেখেছেন কিছু নীতি কাজ করছে না সেগুলো বাদ দিয়েছেন। তিনি ছিলেন প্রাকটিক্যাল। তিনি নিজেই নিজের কিছু নীতির পরবর্তন আরম্ভ করে দিয়েছিলেন।


স্বাধীন বাংলাদেশ পুনর্গঠনে বঙ্গবন্ধুর পরিকল্পনা নিয়ে শুক্রবার রাতে আয়োজিত 'স্বাধীন বাংলাদেশের অর্থনৈতিক পুনর্গঠনে বঙ্গবন্ধু' শীর্ষক ওয়েবিনারে অংশ নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক উপদেষ্টা মসিউর রহমান, কলম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিজিটিং স্কলার গবেষক রওনক জাহান, জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক ও কলামনিস্ট সৈয়দ বদরুল আহসান এবং তরুণ লেখক ও গবেষক হাসান মোরশেদ এসব বিষয় তুলে ধরেন। আওয়ামী লীগের অর্থ ও পরিকল্পনা উপকমিটি আয়োজিত ওয়েবিনারের এই পর্ব সঞ্চালনা করেন দলটির অর্থ ও পরিকল্পনা বিষয়ক সম্পাদক ওয়াসিকা আয়েশা খান।

No comments

-->