নতুন প্রকাশিতঃ

 এনজিওর কিস্তির চাপে একই পরিবারে ৩  জনের আত্মহত্যার চেষ্টা, গর্ভবতী নারীর মৃত্যু।



 মোঃ মিজানুর রহমান মিলন, বগুড়া জেলা প্রতিনিধি : বগুড়ায় এনজিও থেকে নেয়া ঋণের কিস্তির চাপ সহ্য করতে না পেরে গর্ভবতী স্ত্রী ও শিশু সন্তানসহ আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন এক মুদি দোকানি। তাদেরকে হাসপাতালে ভর্তির পর গর্ভবতী গৃহবধূ বুলবুলি বেগম (২২) মারা গেছেন ।গত ১১ নভেম্বর বুধবার বিকেলে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। বুলবুলি বেগম বগুড়া শহরতলীর  নওদাপাড়া গ্রামের মুদি দোকানি মহিদুল ইসলামের স্ত্রী। জানা গেছে, মহিদুল ইসলাম করোনা মহামারীর মধ্যে কর্মহীন হয়ে পড়লে স্ত্রীর নামে বিভিন্ন এনজিও থেকে ঋণ নিয়ে নিজ গ্রামে মুদি দোকান দেন। কিন্তু দোকানের বেচা কেনা নিয়ে ৫ বছর বয়সী এক সন্তান, গর্ভবতী স্ত্রীকে নিয়ে সংসার চালানো কঠিন হয়ে পড়ে। একদিকে সংসার চলে না, অন্যদিকে বিভিন্ন এনজিওর কিস্তির চাপে দিশেহারা হয়ে পড়ে পরিবারটি। একপর্যায়ে ১০ নভেম্বর মঙ্গলবার রাতে মহিদুল তার  স্ত্রী-সন্তানকে বিষাক্ত গ্যাস ট্যাবলেট (পোকা নিধন ট্যাবলেট) সেবন করানোর পর নিজেও তা সেবন করে  অসুস্থ হয়ে পড়েন। প্রতিবেশীরা বিষয়টি টের পেয়ে তাদেরকে উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার বিকেলে গর্ভবতী বুলবুলি মারা যান। শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (ছিলিমপুর) পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক (এস আই) আব্দুল আজিজ মন্ডল জানান, বুলবুলির স্বামী ও সন্তান হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে ।

No comments

-->