নতুন প্রকাশিতঃ

ঠাকুরগাঁও পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সংবাদ সম্মেলন মায়ের কবরের পাশে ছেলের লাশ উদ্ধার মামলায় গ্রেফতার-২।

 ঠাকুরগাঁও পুলিশ সুপার কার্যালয়ের  সংবাদ সম্মেলন মায়ের কবরের পাশে ছেলের লাশ উদ্ধার মামলায় গ্রেফতার-২।



মোঃসোহেল রানা,ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি: ঠাকুরগাঁও পুলিশ সুপার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন।

মায়ের কবরের উপরে ছেলের লাশ উদ্ধার মামলায় গ্রেফতার-২  ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার দেবীপুর ইউনিয়নের মোলানী মাদ্রাসা পাড়া গ্রামে পারিবারিক গোরস্থানে মায়ের কবরের উপরে ছেলের লাশ উদ্ধার মামলায় দশ দিনের মধ্যে দুইজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।বৃহস্পতিবার (২২ অক্টোবর) দুপুরে ঠাকুরগাঁও পুলিশ সুপার কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ এ তথ্য জানায়।

সংবাদ সম্মেলনে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কেল আবু তাহের মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ জানান, গত ২১ অক্টোবর বুধবার ভোর রাতে অভিযান চালিয়ে মৃত নূর ইসলাম হত্যা কান্ডে জড়িত দুুইজনকে গ্রেফতার করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃৃত আসামীরা জানায়, প্রায় একমাস যাবৎ তারা নূর ইসলামের কাছে টাকা ছিনিয়ে নেওয়ার পরিকল্পনা করে।

পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী গত ১০ অক্টোবর নূর ইসলাম দোকান বন্ধ করে দোকানের টাকাসহ বাড়ি ফেরার পথে ভিকটিমের বাড়ির দক্ষিণ পার্শ্বে কবর স্থানের রাস্তায় পৌঁছালে আসামীরা তাকে নূর ইসলামকে এলোপাথারী মারপিট করলে নূর ইসলাম মৃত্যুবরণ করে। তখন আসামীরা তার কাছে থাকা টাকা ছিনিয়ে নেয় এবং মৃত দেহটি তার মায়ের কবরের উপরে ফেলে রাখে মর্মে বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আরিফুল ইসলামের কাছে জবানবন্দী দেয়। জবানবন্দী লিপিবদ্ধ করে আসামীদের জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়।

পুলিশ জানায়, মামলার তদন্ত কার্যক্রম এখনো চলমান আছে। পুলিশ প্রেস বিজ্ঞপিÍতে উল্লেখ করেন, গত ১১ অক্টোবর রোববার মৃত নূর ইসলামের বড় ভাই রুহুল আমিন বাদী হয়ে সদর থানায় একটি লিখিত এজাহার দাখিল করলে মামলাটি রুজু করা হয়। লিখিত এজাহার সূত্রে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কেল আবু তাহের মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ এর নেতৃত্বে অফিসার ইনচার্জ তানভিরুল ইসলাম,

পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) এ.কে.এম আতিকুর রহমান, পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) জিয়ারুল ইসলাম ও তদন্তকারী অফিসার এসআই রনি কুমার পাল নিবিড় ভাবে তদন্ত শুরু করেন ও বিশ্বস্থ সোর্স নিয়োগ করে জড়িত আসামীদের সনাক্ত ও গ্রেফতারের নিমিত্তে ঘটনার পর হতে তথ্য উপাত্ত সংগ্রহ পূর্বক অভিযান পরিচালনা অব্যাহত রেখে তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে নূর ইসলাম হত্যা কান্ডে জড়িত সদর উপজেলার দেবীপুর ওস্তাদপাড়া গ্রামের মৃত আ: আলিমের ছেলে সেলিম রেজা (৩৬) ও একই গ্রামের মৃত আ: কাদের এর ছেলে আব্দুল মান্নান (৪০) কে গ্রেফতার করেন।

উল্লেখ্য: নূর ইসলাম গত ১০ অক্টোবর শনিবার রাত সাড়ে ১০ টার দিকে নিখোঁজ হয়। রাত থেকে তাকে খোঁজা খুজি করে রোববার দুপুরে তার বাড়ির পাশে পারিবারিক কবর স্থানে তার মায়ের কবরের উপরে তার লাশ দেখতে পায়। পরে সদর থানা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে।

নূর ইসলাম দেবীপুর ইউনিয়নের মোলানী মাদ্রাসা পাড়া গ্রামের আবুল কাশেম এর ছেলে। তিনি বৈরাগী বাজারে মুদি খানার দোকান করতো। এসময় সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, ঠাকুরগাঁও প্রেসক্লাবের সভাপতি মনসুর আলীসহ জেলার বিভিন্ন ইলেকট্রনিক, প্রিন্ট ও অনলাইন মিডিয়ার সাংবাদিকরা।

No comments

-->