নতুন প্রকাশিতঃ

লালমনিরহাটে প্রাইভেট শিক্ষক কর্তৃক ছাত্রী ধর্ষণ,৭ মাসের অন্তঃসত্ত্বা

 লালমনিরহাটে প্রাইভেট শিক্ষক কর্তৃক ছাত্রী ধর্ষণ,৭ মাসের অন্তঃসত্ত্বা


মোঃ রাসেল ইসলাম,লালমনিরহাট প্রতিনিধিঃ

লালমনিরহাট সদর উপজেলার অন্তর্গত বড়বাড়ি ইউনিয়নে দশম শ্রেণীতে পড়ুয়া কিশোরী(১৭)প্রাইভেট শিক্ষক সাজু মিয়া কর্তৃক ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

বড়বাড়ি ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ড (কাশেম বাজার) বড় বাসুরিয়া গ্রামে এই ঘটনা ঘটেছে। অভিযুক্ত ধর্ষক একই এলাকার বাছের আলীর ছেলে।

ধর্ষণের শিকার ওই কিশোরীর পরিবার জানায়,কিশোরীর বাবার দুই স্ত্রী। কিশোরী তার বাবার দ্বিতীয় পক্ষের স্ত্রীর মেয়ে এবং সে তার মা,ভাই,বোন ও নানী বড় বাসুরিয়া গ্রামে থাকে।ধর্ষণের শিকার ওই কিশোরী অভিযুক্ত ধর্ষক সাজু মিয়ার কাছে প্রাইভেট পড়ে বলে জানা যায়। প্রাইভেট পড়ানোর সুবাদে ধর্ষক সাজু মিয়া ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করে এবং বর্তমানে সেই কিশোরী সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা।

কিশোরীর পরিবার আরো জানায়, ধর্ষণের শিকার কিশোরী সকলের কাছ থেকে এই বিষয়টি লুকিয়ে রেখেছিলো কিন্তু পরবর্তীতে যখন তার অন্তঃসত্ত্বার চিহ্ন গুলো দৃষ্টিগোচর হয় তখন তার পরিবার জানতে পারে এবং জিজ্ঞাসাবাদে সে শিকার করে।

ঘটনাটি জানাজানি হওয়ার পরে ধর্ষিতা কিশোরীর পরিবার থেকে একাধিকবার ধর্ষক সাজু মিয়ার পরিবারে বিয়ের প্রস্তাব পাঠালে তারা তা অস্বীকার করে।

ঘটনাটি জানার পরে সাংবাদিকেরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে অভিযুক্ত ধর্ষক সাজু মিয়ার পরিবারের লোকজনের সাথে কথা বললে তারা বলে,সবাই বলছে আমাদের ছেলে দোষী তাই সমাজের মাতব্বররা যে সিদ্ধান্ত নিবে তা আমরা গ্রহণ করবো। সেটা যদি বিয়ের সিদ্ধান্তও হয় তবুও আমরা গ্রহণ করবো।

এদিকে আজ দিবাগত রাত ১টার দিকে গ্রামের শালিসি বৈঠকে অভিযুক্ত ধর্ষক সাজু মিয়ার পরিবার ধর্ষণের শিকার ওই কিশোরীর সাথে সাজু মিয়ার বিয়ে মেনে নিবে না বলে জানিয়ে দেয়।

এরপর ধর্ষণের শিকার ওই কিশোরীর পরিবারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তারা সাংবাদিকদের জানায়,

আমাদের মেয়ে ধর্ষণের শিকার হয়েছে এবং তার পেটে ৭ মাসের বাচ্চা রয়েছে,যা সাজু মিয়ার সন্তান কিন্তু সাজু মিয়ার পরিবার প্রথমে স্বীকার করলেও এখন অস্বীকার করছে। এখন আমরা আমাদের মেয়েকে নিয়ে কি করবো,কোথায় যাবো। আমরা তো গরীব মানুষ,আমাদের সাথে অন্যায় অবিচার করা হচ্ছে।

সর্বশেষ তথ্যে এই প্রতিবেদন লেখা অবস্থায় জানা যায় ধর্ষণের শিকার ওই কিশোরীর পরিবার অভিযুক্ত ধর্ষক সাজু মিয়া ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে লালমনিরহাট সদর থানায় মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছে।

No comments

-->