নতুন প্রকাশিতঃ

মোংলায় আওয়ামীলীগ নেতা সুশান্ত সরকারের আত্মার শান্তি কামনায় স্মরণ সভা ।

 মোংলায় আওয়ামীলীগ নেতা সুশান্ত সরকারের আত্মার শান্তি কামনায় স্মরণ সভা



পারভেজ খান মোংলা প্রতিনিধিঃ  পোর্ট পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের  সাধারন সম্পাদক মিঃ সুশান্ত সরকারের পরলোক গমনে ও স্মৃতি স্মরণে উপজেলা আওয়ামীলীগ এবং সকল সহযোগী সংগঠনের উদ্যোগে স্মরণ সভার আয়োজন করা হয়েছে।


শনিবার (১০ অক্টোবর) সকাল ১০ টায় দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত স্মরণ সভায় বক্তব্য রাখেন পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ আব্দু্র রহমান, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ইব্রাহিম হোসেন, পৌর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব শেখ কামরুজ্জামান জসিম, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন, উপজেলা যুব লীগের সভাপতি ইস্রাফিল হাওলাদার, পৌর আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন মিলন, যুগ্ম সম্পাদক কাজী গোলাম হোসেন বাবলু, পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি কাজী মোয়াজ্জেম হোসেন রানা।


সুশান্ত সরকারের পরিবারের পক্ষে বক্তব্য রাখেন তার একমাত্র পুত্র প্রিন্স লিংকন সরকার, ভাগ্নী কবি আফরোজা হীরা।


স্মরণ সভায় কেন্দ্রীয় নেতা কাজী হুমায়ুন কবির, পৌর যুবলীগের সাধারন সম্পাদক শেখ আল মামুন, পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মিজানুর রহমান তালুকদার, পৌর যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এরশাদ হোসেন রনিসহ আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের বিভিন্ন ইউনিটের নেতাকর্মীরা এসময় উপস্থিত ছিলেন।


স্মরণ সভায় বক্তারা বলেন, দেশের করোনাকালীন সময়ে সুশান্ত সরকার মানুষের জন্য কাজ করতে গিয়ে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। তিনি ছিলেন দলের নিবেদিত প্রাণ। পৌরসভায় চাকরির পাশাপাশি তিনি দলের নির্দেশনা অনুযায়ী কাজ করেছে। তার মৃত্যু আমাদের জন্য বড় কষ্টের। আমরা একজন ত্যাগী মানুষকে হারিয়েছি।


স্মরণ সভায় বর্তমান পৌর মেয়র জুলফিকার আলীর কঠোর সমালোচনা করে বক্তারা বলেন, মেয়র জুলফিকার অন্যায়ভাবে পৌরসভা থেকে সুশান্ত সরকারকে সাসপেন্ড করেছেন। তাকে মানসিকভাবে আঘাত করেছেন। পৌরসভা থেকে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সুশান্ত সরকারের যাবতীয় পাওনা তার সন্তানদের কাছে পৌঁছে দিতে মেয়রের প্রতি আহ্বান জানান আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা। গড়িমসি করলে কোন ছাড় দেওয়া হবেনা বলেও হুশিয়ার করেন তারা।

No comments

-->