নতুন প্রকাশিতঃ

পাখী শিকার করার অপরাধে ডোমারে ভ্রাম্যমান আদালতে ৩ জন দন্ডিত

 পাখী শিকার করার অপরাধে ডোমারে ভ্রাম্যমান আদালতে ৩ জন দন্ডিত

 মোঃমশিয়ার রহমান নীলফামারী প্রতিনিধি:

 নীলফামারীর ডোমারে বন্যপাখী শিকারের অপরাধে ভ্রাম্যমান আদালতে তিনজনকে তিন দিনের কারাদন্ড দেওয়া হয়েছে। শনিবার সকালে উপজেলার বোড়াগাড়ী ইউনিয়নের দেওনাই নদীর ধারে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মনোয়ার হোসেন ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে ওই দন্ড প্রদান করেন।

শনিবার সকালে তিনজন শিকারী গ্রামের বিভিন্ন এলাকা থেকে বণ্যপ্রাণী শিকার করে। সংবাদ পেয়ে ডোমার বন বিভাগের কর্মকর্তা রেজাউল করিমসহ অন্যান্য কর্মচারীগণ তাদের বোড়াগাড়ী দেওনাই নদীর ধার হতে আটক করে। এসময় তাদের কাছ থেকে ১৫টি বক ও ৬টি ডহুক পাখী উদ্ধার করা হয়।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মনোয়ার হোসেন ঘটনাস্থলে গিয়ে ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে বণ্যপ্রাণী সংরক্ষণ আইন লঙ্ঘনের ধারা মোতাবেক তিন শিকারীকে তিন দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন। দন্ডপ্রাপ্তরা হলেন, উপজেলার সোনারায় ইউনিয়নের কুমবাড়ী ডাঙ্গা এলাকার মৃত কাল্টু মামুদের ছেলে ইউনুছ আলী ও তার ছেলে মহসীন আলী এবং সদর ইউনিয়নের পশ্চিম চিকনমাটি পাটাকাটা গ্রামের শহীদ ইসলামের ছেলে আনোয়ার হোসেন সাগর পরে পাখীগুলো খোলা আকাশে অবমুক্ত করা হয়।

ডোমার থানার অফিসার ইনচার্জ মোস্তাফিজুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, আটককৃতদের জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।

No comments

-->