নতুন প্রকাশিতঃ

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে পরকীয়ায় বাধা দেয়ায় স্বামীর অমানবিক নির্যাতনে গৃহবধূ হোসনে আরা


গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে পরকীয়ায় বাধা দেয়ায় স্বামীর অমানবিক নির্যাতনে গৃহবধূ হোসনে আরা

জিহাদ ইসলাম,সুন্দরগঞ্জ গাইবান্ধা প্রতিনিধি:

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে পরকীয়ায় বাধা দেয়ায় স্বামীর অমানবিক নির্যাতনে গৃহবধূ হোসনে আরা (২৫) তিন দিন থেকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে। ঘটনাটি উপজেলার ছাপড়হাটী ইউনিয়নের পূর্ব-ছাপড়হাটী গ্রামে ঘটেছে।

স্থানীয়রা জানায়, পূর্ব ছাপড়হাটী (ব্যাপারীপাড়া) গ্রামের গোলাম আজমের মেয়ে হোসনে আরার সাথে ৭ বছর আগে একই গ্রামের খোরশেদ আলমের ছেলে শাহিন আলমের সাথে বিয়ে হয়। ৭ বছরের সংসার জীবনে তাদের এক সন্তান জন্ম নেয়। শাহিন কিছুদিন থেকে পরকীয়া করে আসছে। এই পরকীয়ার বাধা দেয়ায় গত মঙ্গলবার বিকেলে গৃহবধূ হোসনে আরাকে অমানবিক নির্যাতন করে স্বামী শাহিন আলম ও শাশুড়ী মোর্শেদা বেগম। নির্যাতনে গুরুতর আহত হলে স্বজনরা হোসনে আরাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। গৃহবধূ হোসনে আরা হাসপাতালে জানান, তার স্বামী শাহিন আলম ঢাকায় গার্মেন্টসে চাকরি করে। সে দীর্ঘদিন ধরে অবৈধভাবে পরকীয়া চালিয়ে আসছে। পরকীয়ায় বাঁধা দেয়ায় সে ক্ষিপ্ত হয়ে প্রতিনিয়তই এ ধরণের নির্যাতন করে মোটা অঙ্কের যৌতুক দাবী করে। বেশ কয়েকবার তার বাবার বাড়িতেও পাঠায়। কয়েকবার স্থানীয়ভাবে মিমাংশার পরও নির্যাতন সহ্য করে সংসার করে আসছে। এব্যাপারে শাহিন আলমের সঙ্গে মুঠো ফোনে কথা হলে পরকীয়া ও যৌতুকের জন্য নির্যাতন করার বিষয়ে কোন সদুত্তোর দিতে পারেনি। নির্যাতিতা গৃহবধূ হোসনে আরা ন্যায় বিচার কামনা করছেন।

No comments

-->