নতুন প্রকাশিতঃ

শীতে করোনার সেকেন্ড ওয়েভ কার্যকরভাবে মোকাবিলার জন্য সরকার জেলা হাসপাতালগুলোতে আইসিইউ এবং প্রয়োজনীয় অক্সিজেন সরবরাহের ব‌্যবস্থাসহ সার্বিক প্রস্তুতি নিচ্ছে

 

      শীতে করোনার সেকেন্ড ওয়েভ কার্যকরভাবে মোকাবিলার জন্য সরকার জেলা হাসপাতালগুলোতে আইসিইউ এবং প্রয়োজনীয় অক্সিজেন সরবরাহের ব‌্যবস্থাসহ সার্বিক প্রস্তুতি নিচ্ছে

 

অনলাইন ডেক্সঃ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জানিয়েছেন, আসন্ন শীতে করোনার সেকেন্ড ওয়েভ কার্যকরভাবে মোকাবিলার জন্য সরকার জেলা হাসপাতালগুলোতে আইসিইউ এবং প্রয়োজনীয় অক্সিজেন সরবরাহের ব‌্যবস্থাসহ সার্বিক প্রস্তুতি নিচ্ছে।

বৃহস্পতিবার (৮ অক্টোবর) সকালে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে কিশোরগঞ্জের ইটনা-মিঠামইন-অষ্টগ্রাম মহাসড়ক উদ্বোধন শেষে এ কথা জানিয়েছেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘গত শীতে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরু হয়েছিল। করোনাভাইরাস আবার শীতকালে আসতে পারে। সেটা মাথায় রেখে প্রতিটি জেলা হাসপাতালে আইসিইউ নির্মাণ থেকে শুরু করে অক্সিজেনের ব্যবস্থাসহ তাৎক্ষণিক সব ধরনের চিকিৎসাসেবার ব্যবস্থা করে দিচ্ছি।’

প্রধানমন্ত্রী কোভিড-১৯ মোকাবিলায় তার সরকারের পদক্ষেপের কথা উল্লেখ করে বলেন, ‘আমরা হাসপাতালগুলোতে ইতোমধ্যে ২ হাজার ডাক্তার এবং ৩ হাজার নার্স নিয়োগ দিয়েছি।’

করোনাভাইরাস কেবল বাংলাদেশেই নয়, সমগ্র বিশ্বেই ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে, উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘সব থেকে কষ্টের একটা বিষয় হচ্ছে, আমাদের ছোট ছোট ছেলে-মেয়েরা স্কুলে যেতে পরছে না। কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা তাদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যেতে পারছে না। তাদের পড়াশোনা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। তারপরেও আমরা চাচ্ছি, তাদের পড়াশোনাটা যাতে চলমান থাকে। সেজন্য সংসদ টেলিভিশনের মাধ্যমে পাঠদান চলছে।’

তিনি এ সময় ডিজিটাল পদ্ধতিতে তার সরকারের শিক্ষা কার্যক্রম অব্যাহত রাখার প্রচেষ্টায় অভিভাবকদের সহযোগিতা কামনা করেন।

প্রধানমন্ত্রী কিশোরগঞ্জের ইটনা-মিঠামইন-অষ্টগ্রাম মহাসড়কটিকে মুজিববর্ষে রাষ্ট্রপতির পক্ষ থেকে একটি উপহার হিসেবে বর্ণনা করেন।

ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ইটনা-মিঠামইন-অষ্টগ্রাম মহাসড়ক উদ্বোধন শেষে সুবিধাভোগীদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি বলেন, ‘আমরা মুজিববর্ষে মহামান্য রাষ্ট্রপতির পক্ষ থেকে এটি উপহার হিসেবে দিয়েছি।’

এ সময় রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদকে এমন মহাসড়ক তৈরির উদ্যোগ নেওয়ার জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা তার (রাষ্ট্রপতির) অনুপ্রেরণা ও উদ্যোগের কারণে রাস্তাটি নির্মাণ করতে সক্ষম হয়েছি।’

এ অঞ্চলে এ জাতীয় মহাসড়ক নির্মিত হতে পারে, এটা কল্পনার বাইরে ছিল, উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘রাষ্ট্রপতির উদ্যোগের কারণে এটি সম্ভব হয়েছে।’

সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর ৮৭৪ কোটি টাকা ব্যয়ে ইটনা-মিঠামইন-অষ্টগ্রাম সড়কটি নির্মাণ করেছে। ২০১৬ সালের ২১ এপ্রিল ইটনা-মিঠামইন-অষ্টগ্রাম সড়ক প্রকল্পের নির্মাণকাজ আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব‌্য রাখেন। প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউস অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন। সড়ক ও জনপথ বিভাগের সচিব মো. নজরুল ইসলাম প্রকল্পের পর একটি সংক্ষিপ্ত প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করেন।

আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড.আব্দুস সোবহান গোলাপ, পিএমও সচিব মো. তোফাজ্জল হোসেন মিয়া এবং প্রেস সচিব ইহসানুল করিম এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

No comments

-->