নতুন প্রকাশিতঃ

ইউপি মেম্বারের বিরুদ্ধে সরকারী গাছ কাটার অভিযোগ।।

 ইউপি মেম্বারের বিরুদ্ধে সরকারী গাছ কাটার অভিযোগ।।


খাদিজা সরকার মুক্তা,পীরগাছা রংপুর প্রতিনিধি:

রংপুরের পীরগাছায় এক ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে সরকারি সড়কের ৫০ হাজার টাকা মূল্যের পাঁচটি ইউক্যালিপটাস গাছ প্রকাশ্যে কেটে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। ওই ইউপি সদস্যের নাম আব্দুল গফুর মিয়া। তিনি তাম্বুলপুর ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য।


গতকাল শনিবার এলাকাবাসীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যান রওশন জমির রবু ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে গাছ কাটার সত্যতা পেয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছেন।


খোঁজ নিয়ে জানা যায়, সামাজিক বনায়ন কর্মসূচির মাধ্যমে প্রায় ১৫ বছব আগে দেবু সোনারায় থেকে কান্দি সংযোগ সড়ক পর্যন্ত ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোগে প্রায় চার শতাধিক ইউক্যালিপটাস গাছ রোপণ করা হয়। গত বুধবার ওই সড়কের ৫টি গাছ দিনে দুপুরে প্রকাশ্যে কেটে নিয়ে যান ইউপি সদস্য গফুর মিয়া ও তার লোকজন।


গাছ কাটার সময় এলাকাবাসী বাধা দিলে ইউপি সদস্য ও তার লোকজন তাদের ভয়ভীতি দেখিয়ে গাছগুলো নিয়ে চলে যান। যাওয়ার সময় ওই সড়কের বাকি গাছও কাটার হুমকি দেন তারা। নিরুপায় হয়ে এলাকাবাসী সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি অবগত করেন।


স্থানীয় বাসিন্দা সঞ্জয় কুমার জানান, সরকারি রাস্তার গাছগুলো কেটে নিয়ে গেছে ইউপি সদস্য আব্দুর গফুর মিয়া ও তার লোকজন। গাছ কাটার বিষয়টি জানাজানি হলে গফুর মিয়া আমাকে রাস্তার গাছের মালিক দাবি করে গাছ কাটার দায়িত্ব নিতে চাপ সৃষ্টি করে আসছেন। এ ক্ষেত্রে কোনো সমস্যা হলে তিনি দেখবেন বলে আমাকে অভয় দেওয়ার চেষ্টা করছেন।


সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের মহিলা ইউপি সদস্য আরোতী রাণীর স্বামী বিষ্ণু চন্দ্র জানান, গাছগুলোর মূল্য ৫০ হাজার টাকার বেশি হবে। ওই ইউপি সদস্য ক্ষমতার অপব্যবহার করে সরকারি সড়কের গাছ কেটে আত্মসাৎ করেছেন।


ইউপি সদস্য আব্দুল গফুর মিয়া গাছ কাটার অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, গাছগুলো স্থানীয় সঞ্জয় নামের এক ব্যক্তি কেটেছেন। আমি গাছ কাটার বিষয়ে বাধা দিয়েছি।


স্থানীয় তাম্বুলপুর ইউপি চেয়ারম্যান রওশন জমির রবু সরদার জানান, আমি খবর পেয়ে সরেজমিনে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। সেখানে গাছের গোড়াগুলো পড়ে থাকলেও গাছগুলো নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।

No comments

-->