নতুন প্রকাশিতঃ

নীলফামারীতে অঙ্কুর ইন্টারন্যাশনাল সংস্থার আর্থিক সহায়তায় উপার্জনের পথ খুজে পেল ৩ নারী

 নীলফামারীতে অঙ্কুর ইন্টারন্যাশনাল সংস্থার আর্থিক সহায়তায় উপার্জনের পথ খুজে পেল ৩ নারী



নুরুজ্জামান সরকার (ডিমলা) নীলফামারী  প্রতিনিধি:নীলফামারী জেলার ডিমলায় তিস্তাবেষ্টিত এলাকায় বৃহঃবার (২৭-আগস্ট,২০২০) বিকাল ৪ঘটিকায় তিস্তা নদী রক্ষা কমিটির উদ্যোগে উপজেলার তিনটি (০৩) অসহায় পরিবারে মাঝে সেলাই মেশিন বিতরণ করা হয়।


সেলাই মেশিন পাওয়া ভূক্তভোগীর তালিকা ১. টেপাখড়ি বাড়ি ইউনিয়নের দুলালী বেগম (৪০)। ২.পূর্ব ছাতনাই ইউনিয়নের রহিতন বেগম।৩. গয়াবাড়ি ইউনিয়নের জহর উদ্দিন এর স্ত্রী।


ভূক্তভোগীর বর্ননাঃ

টেপাখড়িবাড়ী ইউনিয়নের দক্ষিনখড়িবাড়ী গ্রামের দুলালী বেগম(৪০) ৫জন সন্তানের মা।গত বছর ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে পতিবিয়োগ হয় দুলালী বেগম।ফলে অসহায় হয়ে পড়ে সংসার চালানো এবং ছেলে মেয়েদের লেখাপড়ার খরচ বাবদ হিমসীম খাচ্ছিলো।আয়ের উৎস পেয়ে খুশি দুলালী বেগম।


পূর্বছাতনাই ইউনিয়নের কালিগঞ্জ গ্রামের রহিতন(৩০)।সন্তান নিয়ে তিনিও কর্মহীন হয়ে পরেছিলেন।স্বামী রশিদুল ইসলাম গত চার বছর পূর্বে ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে।ফলে কষ্টের শেষ নেই রহিতন বেগমের।তিস্তা নদী রক্ষা কমিটির মাধ্যমে সেলাই মেশিন পেয়ে খুশি রহিতন বেগম।


অপরদিকে,গয়াবাড়ী ইউনিয়নের কৃষি শ্রমিক জহরউদ্দিন গত বছর তিস্তা নদীতে কাজ করতে গিয়ে পানিতে ডুবে মারা যায় তিনি।তার মৃত্যতে শোকাহত ও কর্মহীন পরিবারটিতে উপার্জনের উৎস হিসাবে তার স্ত্রীকে একটি সেলাই মেশিন দেয়া হয়।


এসময় উপস্থিত ছিলেন নীলফামারী জেলা শাখার সাধারন সম্পাদক ফারুক হোসাইন,সহ-সভাপতি শাহীন, শাহাদত,নাছরিন সিমু সহ কমিটির অন্যান্য সদস্যরা।


বিতরন শেষে স্বাস্থ্য সম্পাদক কামরুজ্জামান ‘সাড়া’ টেলিমেডিসিন সেবার প্রচারনা মূলক একটি বৈঠক করেন মানুষ কে সচেতন করার জন্য।


এইসব অসহায় পরিবারের মাঝে সেলাই মেশিন বাড়িতে দিয়ে আসেন তিস্তা নদী রক্ষা কমিটি নীলফামারী শাখার সহ-সভাপতি ফরহাদ হোসেন, নারী ও শিশু বিষয়ক সম্পাদক নিহাদ সুলতানা, মানবসম্পদ উন্নয়ন সম্পাদক মোজাহারুল, হাফিজুল ও অছিমুদ্দীন প্রমূখ।


উক্ত তিস্তা নদী রক্ষা কমিটিকে আর্থিকভাবে সহায়তা করেন অঙ্কুর ইন্টারন্যাশনাল দাতা সংস্থা।

No comments

-->